টাইমলাইনটাকা পয়সাভারতলাইফস্টাইল

মুকেশ আম্বানির বিপুল সম্পত্তি আসল কারণ হল ফাঁস, এই গাছ বদলে দিয়েছে ভাগ্য

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: ধনী হওয়া প্রত্যেকেরই ইচ্ছা তো সকলেরই থাকে। প্রত্যেকেই চায় অগাধ সম্পদের মালিক হতে পারে। তবে এর জন্য পরিশ্রমের সাথে সাথে প্রয়োজন উর্বর মস্তিষ্কের। তবে অনেকে সেই পর্যায়ে পৌঁছনোর জন্য বিভিন্ন কৌশলও অবলম্বনও করে থাকেন। অনেকেই সেই উচ্চতায় পৌঁছনোর জন্য তন্ত্র-মন্ত্র বিশেষজ্ঞদের পরামর্শও নেন। এর পরেও কিন্তু সকলের কপালে বিপুল ধনসম্পদ জোটে না।

আজকালকার দিনে অনেকের বিশ্বাস যে এমন কিছু গাছও আছে যা বাড়িতে আনলে ধীরে ধীরে ঘরের ধন-সম্পদ বাড়ে। হ্যাঁ, বাস্তুশাস্ত্র অনুসারে সত্যিই এমন কিছু গাছ আছে যা ঘরে লাগালে মানুষের ভাগ্য বদলাতে সময় লাগে না এবং প্রচুর ধন-সম্পদ আসে। সেইরকমই একটি গাছ হল ময়ূরপঙ্খি গাছ, যাকে বিদ্যা মাতা বা গোদা বাংলায় ঝাউ গাছ নামেও ডাকা হয়।

ময়ূরপঙ্খি গাছ সম্পর্কে লোকের বিশ্বাস যে এই গাছটি যদি সবসময় জোড়ায় জোড়ায় রোপণ করা হয় তাহলে বাড়ির মালিকের ধন সম্পত্তি বৃদ্ধি পায়। শোনা যায় যে এশিয়ার অন্যতম ধনী ব্যক্তি মুকেশ আম্বানির বাড়িতেও এই ময়ূরপঙ্খি গাছটি রয়েছে এবং তিনি জোড়ায় জোড়ায় এই গাছটি রোপণ করেছেন। অনেকে মনে করেন এটাই তার বিপুল সম্পদের পেছনের আসল রহস্য।

কথিত আছে যে এই গাছটি ঘরে লাগানোর সাথে সাথেই ধীরে ধীরে সম্পদ বাড়তেই শুরু করবে না, তার সাথে সাথে এবং এই গাছটি ঘরে আসা সম্পত্তি ধরে রাখারও কাজ করে। যে বাড়িতে এই গাছটি থাকে সেখানে দারিদ্র্য কখনই আসতে পারে না। এই কারণের জন্য ময়ূর গাছটিকে অত্যন্ত সৌভাগ্যবান উদ্ভিদ বলে মনে করা হয়।

Related Articles

Back to top button