টাইমলাইনভারত

বিদেশেও হচ্ছে যোগীর চর্চা, করোনা নিয়ন্ত্রণে TIME ম্যাগাজিনে আদিত্যনাথের ভূয়সী প্রশংসা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) কাজের চর্চা এখন বিদেশেও হচ্ছে। অক্রনা মহামারীর সময় মুখ্যমন্ত্রীর পদক্ষেপ নিয়ে TIME ম্যাগাজিন (Time Magazine) তিন পাতার একটি প্রতিবেদন লিখেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, উত্তর প্রদেশ সরকার যেভাবে করোনা মহামারী নিয়ন্ত্রণ করেছে, সেটার প্রশংসা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংগঠনও করেছে। শুধু তাই নয়, করোনা মহামারীর নিয়ন্ত্রণের জন্য যোগী মডেলের প্রশংসা আন্তর্জাতিক স্তরেও হয়েছে।

yogi adityanath pti191219 2 Bangla Hunt Bengali News

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, স্বাস্থ্য কাঠামোর প্রতিকূল পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ যেভাবে করোনার মহামারী নিয়ন্ত্রণে পদক্ষেপ নিয়েছেন তা সবার জন্য অতুলনীয় উদাহরণ। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফেব্রুয়ারি মাসে প্রথম সংক্রমণের মামলা সামনে আসার পর মুখ্যমন্ত্রী যেভাবে স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সমীক্ষা করে জরুরী পদক্ষেপ নিয়েছেন আর রণনীতি বানিয়েছেন সেটা সত্যিই প্রশংসার যোগ্য। যখন দেশের অন্য রাজ্যের সরকার কোনও পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করেনি, তখন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ করোনার সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য পরিকল্পনা নিয়ে নিয়েছিলেন।

577622 yogimeetinghuman resource Bangla Hunt Bengali News

প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে যে, ২২ মার্চ পর্যন্ত যখন মহামারী ভারতে ছড়িয়ে পরছিল, তখন উত্তরপ্রদেশে মাত্র একটিই টেস্টিং ল্যাব ছিল। আর সেই ল্যাবে প্রতিদিন মাত্র ৬০ জনের স্যাম্পেলই টেস্ট করা সম্ভব ছিল। এরপর নিজের সমস্ত ক্ষমতার ব্যবহার করে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যে ২৩৪ টি টেস্টিং ল্যাব গড়েন, যেখানে রোজ ১ লক্ষ ৭৫ হাজার জনের স্যাম্পেল টেস্ট হচ্ছে এখন। শুধু তাই নয়, সর্বাধিক করোনা টেস্টের রেকর্ডও উত্তর প্রদেশের নামে আছে। এখনো পর্যন্ত প্রায় ১ কোটি ৯ লক্ষ টেস্ট করা হয়েছে রাজ্যে।

প্রতিবেদনে মুখ্যমন্ত্রীর টিম-১১ এর কথাও উল্লেখ করা হয়েছে। টাইম ম্যাগাজিনে লেখা হয় যে, দেশে লকডাউনের ঘোষণার আগে মুখ্যমন্ত্রী তিনদিন লকডাউন জারি করে পরিস্থিতির সমীক্ষা করেছিলেন। লকডাউনে সাধারণ মানুষের প্রয়োজনীয় সামগ্রীর সরবরাহ যাতে বন্ধ না হয়, সেই কারণে যোগী আদিত্যনাথ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

প্রতিবেদনে এও লেখা হয় যে, জখম মার্চ মাসে লকডাউন শুরু হয় তখন রাজ্যে একটিও কোভিড হাসপাতাল ছিল না। এটা সরকার আর রাজ্যের মানুষের কাছে বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছিল। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের কুশল রণনীতির কারণে আজ গোটা রাজ্যে ৬৭৪ টি কোভিড হাসপাতাল আছে।

Back to top button