টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

১০০ দিনের কাজ নিয়ে তুমুলে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, চরম উত্তেজনা এলাকায়

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ফের ১০০ দিনের কাজ নিয়ে প্রকাশ্যে এল তৃণমূলের (tmc) গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। অভিযোগ উঠেছে, মাটি কাটা চলাকালীন হাতাহাতিতে জড়ায় তৃণমূলের দুই পক্ষ। যার জেরেই মাঝপথেই থামিয়ে দিতে হয় ১০০ দিনের কাজ। ঘটনায় উত্তেজনা ছড়াতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঘটনাটি ঘটেছে নাটাবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত আন্দরান ফুলবাড়ি ২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। কিছুদিন আগেই ৮/৫০ নম্বর বুথের বুথ সভাপতির পদ থেকে ময়ান আলীকে সরিয়ে সেই জায়গায় নিয়ে আসা হয় খরগো বর্মনকে। কোচবিহার জেলা পরিষদের সভাপতি পঙ্কজ ঘোষের উপস্থিতিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও, পরবর্তীতে এই সিদ্ধান্তকে নাকচ করে দেন জগদীশ বর্মণ।

শুধু তাই নয়, পরবর্তীতে তুফানগঞ্জ ১(এ) ব্লক সভাপতি জগদীশ বর্মণ এই ঘোষণাকে অবৈধ বলে ঘোষণা করে খরগো বর্মনের পরিবর্তে আবারও ময়ান আলীকের কাঁধেই এই দায়িত্ব দেয়। আর তারপর থেকেই এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায় গোটা এলাকায়।

অভিযোগ উঠেছে, ঘটনার দিন সকালে অন্দরান ফুলবারি দুই গ্রাম পঞ্চায়েতের ছালাপাক এলাকায় ৮/৫০ নম্বর বুথে যখন মাটি কাটার কাজ চলছিল, সেই সময় হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন তৃণমূলের দুই পক্ষ। যার কারণে বন্ধ রাখতে হয় ১০০ দিনের কাজ। এরপর থানায় খবর দিতেই তুফানগঞ্জ থানার বিশাল পুলিশবাহিনী এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

যদিও এই ঘটনায় নিজেদের দিকে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি দুলাল চক্রবর্তী ও আসার আলী। এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলেই দাবি করেছেন তাঁরা।

Related Articles

Back to top button