টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

শুভেন্দুর সঙ্গে একই মঞ্চে দেখা গিয়েছিল এক তৃণমূল নেতাকে, ‘দলবিরোধী’ অভিযোগে বহিস্কার করল শাসক দল

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ বেশ কয়েকদিন ধরে শুভেন্দু অধিকারীর মতই তৃণমূলের (All India Trinamool Congress) সাধারণ সম্পাদক বিদ্যুৎ দাসের (Bidyut Das) কর্মকান্ডে ক্ষিপ্ত ছিল শাসক দল। তাই আর বিন্দুমাত্র দেরি না করে ‘দলবিরোধী’ কাজের অভিযোগ করে বাঁকুড়া জেলা যুব তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক বিদ্যুৎ দাসকে ‘বহিস্কার’ করল সবুজ শিবির।

সম্প্রতি শুভেন্দু অধিকারীর মন্ত্রীত্ব ছাড়ার পর বেশ কিছুটা চাপে থাকলেও, নিজেদের ক্ষমতা জাহির করতে ছাড়ল না শাসক দল। বিদ্যুৎ দাসকে দল থেকে ‘বহিস্কার’ করে তারা দেখিয়ে দিতে চাইল, একফোঁটাও শংসয়ে নেই তৃণমূল। প্রয়োজনে তারা দলবিরোধী সদস্যদের দল থেকে বহিস্কার করতেও পিছুপা হয় না।tmc stry 647 033117111406 0 0 Bangla Hunt Bengali News

বিগত কয়েকদিন ধরেই বিদ্যুৎ দাসের কাজকর্মে কিছুটা চটেছিল তৃণমূল দল। এমনকি কালী পুজোর দিনও বর্তমান সময়ে আলোচনার শীর্ষে থাকা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে একটি অরাজনৈতিক অনুষ্ঠানেও তাঁকে দেখা গিয়েছিল বলেও অভিযোগ উঠেছে। তাই দলবিরোধী কাজ করার অভিযোগ শুক্রবার জেলা তৃণমূল ভবনে এক সাংবাদিক বৈঠকে জেলা কমিটির চেয়ারম্যান শুভাশীষ বটব্যাল, বিদ্যুৎ দাসকে দল থেকে বহিস্কার করার ঘোষণা করলেন।

বিদ্যুৎ দাসের থেকে প্রথমে প্রাথমিক সদস্যপদ কেড়ে নেওয়ার পর শুভাশীষ বটব্যাল সরাসরি জানিয়ে দেন, ‘যে যত বড়ই নেতা হোন না কেন, দল বিরোধী কাজ করলে দল কখনই তাঁকে ছেড়ে কথা বলবে না। দলের নির্দেশেই বিদ্যুৎ দাসকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। আগামী নির্বাচনে একটি সুশৃঙ্খল ও ঐক্যবদ্ধ দল হিসাবে এগিয়ে যাওয়াই তৃণমূলের লক্ষ্য’।

তৃণমূলের এই সিদ্ধান্তে বিজেপির বাঁকুড়া জেলা সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্র জানিয়েছেন, ‘তৃণমূল কাকে কখন বহিস্কার করছে, তা নিয়ে আমাদের বিন্দুমাত্র মাথা ব্যাথা নেই। ওঁরা বোধহয় নিজেই জানে না, দলে কে কখন কোন দায়িত্বে থাকে’।

Back to top button