টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গভারতরাজনীতি

‘ভারত মমতাদিকেই চায়’, লোকসভার আগে আগেই ‘বাঙালি প্রধানমন্ত্রী”র দাবিতে প্রচারে নামল তৃণমূল

বাংলাহান্ট ডেস্ক : একুশের বিধানসভা নির্বাচনে ঐতিহাসিক জয়ের পর থেকেই তৃণমূলের পাখির চোখ দিল্লি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিল্লির মসনদে বসাতে মরিয়া দল। এই লক্ষ্যে দীর্ঘদিন ধরেই প্রচার চালিয়ে আসছে তৃণমূল কংগ্রেস। এই প্রচারের তালিকায় এবার নবতম সংযোজন ‘ইন্ডিয়াওয়ান্টসমমতাদি’ নামক একটি ওয়েবসাইট।

বিধানসভা নির্বাচনের আগে ‘বাংলা নিজের মেয়েকে চায়’ শীর্ষক প্রচার অভিযান চালিয়ে আকাশচুম্বী সাফল্য পেয়েছিল ঘাসফুল শিবির। ভোটের মুখে রাজ্যের মানুষের মুখে মুখে ঘুরেছে এই স্লোগান। এবার এই একই ঢঙে দিল্লি দখলের প্রচারও সারতে চায় তারা। তবে এবারের এই প্রচার আরও বড় এবং আরও জমাটি হবে বলেই খবর তৃণমূল সূত্রে৷

শনিবারই আনুষ্ঠানিক ভাবে ওয়েবসাইটটির উদ্বোধন করে তৃণমূল মনস্ক তরুণদের একটি সংগঠন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডেরেকভো ব্রায়েন। ওয়েবসাইটটির প্রতিটা পাতাতেই লেখা হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে। তাঁর জীবন, তাঁর সাফল্যের খতিয়ান, ছবি ইত্যাদিতেই ভরেছে পাতার পর পাতা। এমনকি এই ওয়েবসাইটে মিলবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাষণ, বক্তব্য ইত্যাদিও। অতি শীঘ্রই ওই সংগঠনের তরফে আসতে চলেছে ডিজিট্যাল ম্যাগাজিন ‘উত্তরণ’। সেটিও যে মমতা কেন্দ্রিকই হবে তা বলাই বাহুল্য।

জাতীয় স্তরে মমতার কৃতিত্বের কথা তুলে ধরার উদ্দ্যেশ্যেই তৈরি করা হয়েছে ওয়েবসাইটটি। ৩৪ বছরের বাম শাসনের অবসান ঘটিয়ে কীভাবে তিনি বদলে দিয়েছিলেন রাজ্য রাজনীতির সমীকরণ, কীভাবে মাত্র ১১ বছরের ক্ষমতাকালের মধ্যেই দেশের অন্যতম প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে উঠে এসেছেন তিনি সেসবেরই পুঙখানুপুঙখ বর্ণনা করেছে ওয়েবসাইটটিতে। পরবর্তীতে প্রচারের কাজে আরও বেশি করে ব্যবহার করা হবে এটি। ইতিমধ্যেই যে ওয়েবসাইটটিকে পছন্দ করতে শুরু করেছেন একটা বড় সংখ্যক মানুষ তা বলাই বাহুল্য।

Related Articles

Back to top button