টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গবিধানসভা নির্বাচনরাজনীতি

আক্রান্ত তৃণমূল কর্মীরা! পেটানোর অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ভোট পরবর্তীতে উত্তপ্ত হয়ে উঠল সোনারপুর (Sonarpur)। তৃণমূল (tmc) বিজেপির (bjp) সংঘর্ষে ধুন্ধুমার রাজপুর সোনারপুর পুরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের জলপোল এলাকা। তৃণমূল কর্মীদের উপর মারধরের অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। আতঙ্ক ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।

সূত্রের খবর, দলীয় কর্মীকে মারধরের খবর পেয়ে সোমবার রাতে ছুটে যান তৃণমূলের বেশ কয়েকজন কর্মী-সমর্থক। তাঁরা সেখানে গিয়ে বুঝতে পারেন, এটা একটা ফাঁদ ছিল। অভিযোগ, ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই রাস্তাতেই তাদের উপর চড়াও হয় বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী।

 

অভিযোগ তৃণমূল কর্মীদের উপর চড়াও হয়ে বিজেপি কর্মীরা রড, লাঠি ও বন্দুকের বাঁট দিয়ে তাদের বেধড়ক মারধর করে। তৃণমূলের ৪ জন কর্মী সমর্থক আক্রান্ত হন। যাদের মধ্যে নিমাই সরদার ও রণ সরদার নামে দুই তৃণমূল কর্মীর মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনার খবর পেয়ে নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ বাহিনী পৌঁছায়। ঘটনার জেরে ইতিমধ্যেই ২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এই বিষয়ে তদন্ত চলছে। আহতদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আতঙ্কে রয়েছে গোটা এলাকাবাসী।

এই ঘটনায় বিজেপির দিকে ওঠা অভিযোগের আঙ্গুল অস্বীকার করেছে গেরুয়া শিবির। সোনারপুর উত্তর বিধানসভা এলাকার ১ নম্বর মণ্ডলের বিজেপি সভাপতি তাপু চৌধুরী জানিয়েছেন, ‘এই ঘটনার জন্য বিভিন্ন এলাকায় তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্বই দায়ী। নিজেদের দোষ উল্টে বিজেপির ঘাড়ে চাপিয়ে মিথ্যা মামলায় ফাঁসাচ্ছে। গোটা রাজ্যে এইসবই করছে তৃণমূল’।

ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ওই ওয়ার্ডের প্রাক্তন পুরমাতা পাপিয়া হালদার অভিযোগ করেছেন, ‘নির্বাচনে হারের আশঙ্কা করেই সন্ত্রাস করছে বিজেপি। বিভিন্ন এলাকায় তৃণমূলের উপর হামলা করে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে’।

Back to top button