টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

গরমের রাতে জানালা খোলা রাখাই হলো কাল! দুষ্কৃতীদের গুলিতে খুন সন্দেশখালির তৃণমূল কর্মী

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রাজ্যে ফের খুন হলেন এক তৃণমূল কর্মী। ঘুমন্ত অবস্থায় এলোপাথাড়ি গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা এবং সেই কারণেই অবশেষে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন উত্তর 24 পরগনার তৃণমূল নেতা প্রদীপ নায়েক। এই ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনার পর গোটা একদিন কেটে গেলেও এখনও পর্যন্ত অভিযুক্তদের ধরতে পারেনি পুলিশ। এমনকি খুনের কারণ নিয়েও যথেষ্ট ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে।

ঘটনার কেন্দ্রস্থল উত্তর 24 পরগনার সন্দেশখালির জ্যোতিষপুর গ্রাম। অতীতে এলাকায় বুথ কমিটির সভাপতি থাকলেও বর্তমানে 100 দিনের কাজ প্রকল্পে সুপারভাইজার পদে নিযুক্ত ছিলেন প্রদীপবাবু। তবে তৃণমূল নেতাকে খুনের পেছনে কী কারণ রয়েছে, সেই সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা মেলেনি। জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে প্রচণ্ড গরম হওয়ার কারণে ঘরের ভেতরে জানালা খোলা রেখেই ঘুমোতে যান তিনি আর সেই সুযোগ নিয়েই পরের দিন ভোরের দিকে জানালার বাইরে এসে উপস্থিত হয় দুষ্কৃতীরা। এরপর তৃণমূল নেতাকে উদ্দেশ্য করে একের পর এক গুলি ছুড়তে থাকে তারা।

পরবর্তীতে, গুলির আওয়াজে পরিবারের সদস্যরা প্রদীপবাবুর ঘরে পৌঁছলেও সেইমুহূর্তে পালিয়ে যায় অপরাধীরা। ততক্ষণে গুলির আঘাতে গুরুতরভাবে জখম হয়ে যান তৃণমূল নেতা এবং পরবর্তীকালে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হল বাঁচানো যায়নি তাঁকে। এর পরেই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় স্থানীয় থানার পুলিশ। পুরনো শত্রুতার জেরে খুন বলে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, তবে এক্ষেত্রে কোনো সুস্পষ্ট ধারণা মেলেনি।

বর্তমানে বসিরহাট জেলা হাসপাতালে তৃণমূল নেতার দেহ পোস্টমর্টেমের জন্য পাঠানো হয়েছে। তবে পরিবারের তরফ থেকে অভিযোগ দায়ের করা পর গোটা একদিন পেরিয়ে গেলেও এখনো পর্যন্ত অভিযুক্তদের কোন রকম খোঁজ পায়নি পুলিশ, যা নিয়ে ইতিমধ্যেই এলাকায় শুরু হয়েছে চাঞ্চল্য। তবে অপরাধীদের পাকড়াও করে কড়া শাস্তি দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button