টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

জন্মদিনেই শুনতে হল ‘গো ব্যাক’ শ্লোগান, মুখ হাড়ি করে গাড়ি ঘোরালেন ‘বার্থ ডে বয়’ নির্মল মাঝি

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ জন্মদিনেই শুনতে হল ‘গো ব্যাক’ শ্লোগান। বেগতিক দেখে গাড়ি ঘুরিয়ে হাসপাতাল ছাড়লেন অঘোষিত স্বাস্থ্যমন্ত্রী নির্মল মাঝি (nirmal maji)। তাঁর কথায় কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে চন্দ্র সূর্য উঠলেও, বুধবারের এই ঘটনায় অবশ্য এখনও অবধি কোন প্রতিক্রিয়া দেননি নির্মল মাঝি।

বিষয়টা হল, নিজের জন্মদিন পালন উপলক্ষ্যে হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ করে বুধবার কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে বহু চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য আধিকারিককে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। পূর্ব পরিকল্পনা মত, বুধবার বেলা আড়াইটে নাগাদ হাসপাতাল চত্ত্বরে পৌঁছান নির্মল মাঝি। আর ঠিক সেই সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি হাতে নিয়ে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান দিতে শুরু করেন জুনিয়র ডাক্তাররা।

nirmal maji

আচমকা এমন ঘটনায় পরিস্থিতি বেগতিক দেখে গাড়ি ঘুরিয়ে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যান ‘বার্থ ডে বয়’ নির্মল মাঝি। এই ঘটনায় বেশকিছুটা স্বস্তির রেখা দেখা গেল জুনিয়র ডাক্তারদের চোখে মুখে।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে প্রোগ্রেসিভ ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশনের তরফ থেকে রীতিমত হুলিয়া জারি সেখানে উপস্থিত হওয়ার কথা বলা হয়েছিল। প্রোগ্রেসিভ ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশনের ব্যানারে ইডেন হাসপাতালে নির্মলবাবুর জন্মদিন পালনে জন্য কেক, বেলুন সবকিছুরই আয়োজন করা হয়েছিল।

অনেকে বাধ্য হয়েই ভয়ে সেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন। যার ফলে হাসপাতালের পরিষেবায় তার প্রভাব পড়ছিল। এটা একটা করোনা হাসপাতাল। হাসপাতালে এভাবে জন্মদিন পালন করা যায় কি? এমন প্রশ্ন তুলেছেন চিকিৎসকদের একাংশ। তাঁদের দাবী, এর আগেও হাসপাতালে লাউড স্পিকার বাজিয়ে রাখিবন্ধন অনুষ্ঠান পালন করেছিলেন নির্মল মাঝি। কিন্তু এসব আর মেনে নেওয়া যায় না।

Related Articles

Back to top button