টাইমলাইনভারত

বিয়ে করে সংসার পাততে চেয়েছিল কেরলের এই ISIS জঙ্গি

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ কেরলের (Kerala) কোচির NIA আদালত ISIS জঙ্গি সুবহানি মোইদিনকে (Subahani Haja Moideen) আজীবন কারাবাসের সাজা শুনিয়েছে। ৩৫ বছর বয়সী মোইদিন ISIS এর উমর আল-হিন্দি (Omar al-Hindi) মডিউলের সদস্য। পুরো দক্ষিণ ভারতে জঙ্গি হামলাই করা ছিল তাঁর স্বপ্ন। আর সেই স্বপ্ন পূরণের জন্য সুবাহিন ISIS এর কেরল ইউনিট বানিয়েছিল। এই মডিউলের ছয় অন্য সদস্যকে গত বছর সাজা শোনানো হয়েছিল। এই মডিউলের পর্দাফাঁস ২০১৬ সালে হয়েছিল। জানা গিয়েছে যে, এই মডিউলের অনেক সদস্যই এখনো পলাতক।

Subahani Haja Moideen

এক তামিল পরিবারের সদস্য মোইদিনের ইতিহাস অনেক বিপজ্জনক। তাঁর পরিবার কয়েক দশক আগে তামিলনাড়ু থেকে কেরলে এসে বসবাস শুরু করে। তাঁর পরিবার ব্যবসায়িক পরিবার হিসেবেই পরিচিত ছিল। এরপর মোইদিনের মাথায় ধার্মিক উন্মাদনা ঢুকে পড়ে আর এরপর সে জঙ্গি হয়ে যায়। মোইদিনের ভিতরে ইরাক নিয়ে একটি আলাদা আকর্ষণ ছিল। সে চেয়েছিল সেখানে বিয়ে করে সংসার পাততে।

এনআইএ অনুযায়ী, মোইদিন ২০১৫ আলে চেন্নাই থেকে ইস্তানবুল হয়ে ইরাকে মোসুলে গিয়েছিল। তাঁর উদ্দেশ্য ছিল আইএসআইএসে যোগ দেওয়া। সেখানে সে ২৫ দিন ধার্মিক আর ২১ দিন অস্ত্রের ট্রেনিং নেয়। যদিও তাঁর ট্রেনাররা তাকে আনফিট পায় আর তাকে গার্ডের ডিউটিতে লাগিয়ে দেয়। কিছুদিন পর্যন্ত সেখানে কাজ করার পর মোইদিন ভারতে আসার ইচ্ছে প্রকাশ করে আর ISIS তাকে সোজাসুজি না করে দেয়। এরপর সে কোনওরকম ভাবে সেখান থেকে পালিয়ে তুর্কি হয়ে ভারতে চলে আসে।

ভারতে আসার পর সে ISIS সমব্যথীদের খোঁজ শুরু করে। সে সোশ্যাল মিডিয়ায় বড়সড় একটি জাল বিছায়। NIA এর চার্জশিট অনুযায়ী, সে বিস্ফোটক বানানোর জন্য প্রায় ৫০ কেজি সামগ্রী জড় করেছিল। সেই বিস্ফোটক পাঁচ কিমি এলাকা একবারে উড়িয়ে দেওয়ার ক্ষমতা রাখত।

মোইদিনের সাজা শোনানর সময় বিচারক বলেন, ওর কাজ কেরল রাজ্যের জন্য একটি বড়সড় দাগ। দেশের সবথেকে প্রোগ্রেসিভ সমাজের জন্য একটি বড়সড় ধাক্কা।

Back to top button