টাইমলাইনআবহাওয়া

পুজোর আনন্দ পণ্ড করতে ষষ্ঠী থেকেই দেখা দেবে বৃষ্টি, অশনি সংকেত দিল আবহাওয়া দফতর

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ করোনা আবহ পুজোর আনন্দ ম্লান করলেও, অন্ধকারের জ্যোতি হয়েছিল রাজ্য সরকার। পুজোতে সায় দিতেই সেজে উঠছিল তিলোত্তমা। কিন্তু এ কেমন পূর্বাভাস দিল আবহাওয়া দফতর (Weather office)! প্রথমে ছিল ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস, আর এবার দিল বৃষ্টির অসুরের আগমনী ইঙ্গিত।

বর্ষা বিদায়ের দিনক্ষণ স্থির করলেও, বাংলা ছেড়ে যাওয়ার নাম নিচ্ছে না বর্ষা। তবে বিগত কয়েকদিন ধরে বাংলার আবহাওয়ার বিশেষ কোন পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়নি। তাপমাত্রার বৃদ্ধিতে ভ্যাপসা গরমে নাজেহাল হয়ে পড়ছিল মানুষজন। তবে করোনা আবহের মধ্যে পুজো হলেও, বাঙালী কখনই পুজোতে বৃষ্টি অসুরের আগমনকে মেনে নিতে পারছে না।

কবে থেকে হবে বৃষ্টি?
আবহাওয়া দফতর জানিয়ে দিয়েছে, ষষ্ঠী থেকে অষ্টমী, অর্থাৎ ২২ থেকে ২৪ শে অক্টোবর বাংলার আকাশে দেখা মিলবে কালো মেঘের। বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে বাংলার সর্বত্রই। চলতি বছর বঙ্গোপসাগরে একের পর এক নিম্নচাপ সংগঠিত হওয়ায় কখনও ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস, তো আবার কখনও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস।

ইঙ্গিত নিম্নচাপের
আবারও ১৯ শে অক্টোবর বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার আশঙ্কা করেছে আবহাওয়াবিদরা। যার সম্ভাব্য অভিমুখ ওড়িশা-অন্ধ্র হলেও, বাংলার এর আংশিক প্রভাব পড়বে বলে জানা গিয়েছে। যার জেরেই এবারের পুজো পণ্ড করতে নিজেও সেজে গুজে তৈরি হচ্ছে বৃষ্টি অসুর।

আজকের আবহাওয়া
বিগত কয়েকদিন ধরে বাতাসে জলীয় বাস্পের পরিমাণ বেশি থাকায় বেশ গরম অনুভব করছে মানুষজন। তবে এই মুহূর্তে বাংলায় সেভাবে কোন ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিচ্ছে না হাওয়া অফিস। আজকের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে এবং সর্বিনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে। সকালের দিকে আকাশ আবছা থাকলেও, রাতের দিকে বিক্ষিপ্ত হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

Related Articles

Back to top button