টাইমলাইনবিনোদন

যাদবপুর বিশ্ববিদ‍্যালয়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ‘মানি হায়েস্ট’এর টোকিও! বললেন ‘বিপ্লব দীর্ঘজীবী হোক’

বাংলাহান্ট ডেস্ক: স্প‍্যানিশ ওয়েব সিরিজ (web series) লা কাসা দে পাপেল বা মানি হায়েস্টের (money heist) জনপ্রিয়তা উত্তরোত্তর বেড়েই চলেছে। তবে প্রথম থেকেই কিন্তু সিরিজটি নিয়ে এত মাতামাতি হয়নি। পরে নেটফ্লিক্সে স্ট্রিমিং শুরু হতেই তুঙ্গে ওঠে এই সিরিজের জনপ্রিয়তা। অতি সম্প্রতি রিলিজ হয়েছে সিরিজের পঞ্চম সিজন। জনপ্রিয়তার তুঙ্গে উঠেছে প্রফেসর, টোকিও, নাইরোবি, বারলিনের মতো চরিত্ররা।

বলা হয় ভক্তরা ছাড়া তারকারা কিছুই নয়। অনুরাগীদের ভালবাসাই স্টারডম এনে দেয় তারকাদের। প্রিয় তারকার জন‍্য ভালবেসে কত কিছুই না করে অনুরাগীরা। ছবি আঁকা, গান উৎসর্গ থেকে শুরু করে আরও অনেক কিছু। ‘ফ‍্যানমেড’ কথাটা এখন প্রায়ই শোনা যায়। প্রিয় চরিত্রকে নিজের শিল্প দিয়ে ফুটিয়ে তোলার মধ‍্যে আলাদাই একটা তৃপ্তি আছে।


মানি হায়েস্টের চরিত্রগুলি নিয়েও এমন বহু ফ‍্যানমেড বা ফ‍্যান আর্ট তৈরি হয়েছে। এমনি একটি ছবি নিয়ে প্রশংসায় পঞ্চমুখ টোকিও চরিত্রাভিনেত্রী উরসুলা কর্বাতু (Úrsula Corberó)। সবথেকে চমকের বিষয়টা হল এই ছবিটি আঁকা হয়েছে কলকাতার যাদবপুর বিশ্ববিদ‍্যালয়ে। সুদূর স্পেনে বসে কলকাতার বিশ্ববিদ‍্যালয়ের ভূয়সী প্রশংসা করলেন অভিনেত্রী।

মানি হায়েস্টের ডালি মাস্কের ছবি নিজের তুলিতে যাদবপুর বিশ্ববিদ‍্যালয়ের দেওয়ালে ফুটিয়ে তুলেছিলেন আরাত্রিকা বসু। যাদবপুর ইউনিভার্সিটি নামে বিশ্ববিদ‍্যালয়ের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল এ শেয়ার করা হয়েছিল সেই ছবি। সোশ‍্যাল মিডিয়ার দৌলতে যা পৌঁছে গিয়েছে ‘টোকিও’ উরসুলার কাছে। নেটফ্লিক্সের তরফে একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছিল যেখানে ‘গ্র‍্যাফিটি’র ব‍্যাপারে নিজের ভালবাসা প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছে অভিনেত্রীকে।

তিনি বলেন ভারতে বহু রাস্তা, বাড়ির দেওয়ালে খুবই সুন্দর সুন্দর শিল্পের নিদর্শন পাওয়া যায়। আরাত্রকিরার আঁকা ডালি মাস্কের ছবিটি দেখে অভিভূত উরসুলা। ক‍্যাপশনে লেখা ‘বিপ্লব দীর্ঘজীবী হোক’ ও বলেন তিনি। ভাঙা ভাঙা উচ্চারণে নেন যাদবপুর ইউনিভার্সিটির নামও। সবশেষে হাত দিয়ে হৃদয়ের সংকেত দেখান অনুরাগীদের উদ্দেশে। যাদবপুর বিশ্ববিদ‍্যালয়ের তরফে শেয়ার করা হয়েছে এই ভিডিও, যা নিঃসন্দেহে কলকাতা তথা ভারতবাসী হিসেবে গর্বের বিষয়।

Related Articles

Back to top button