টাইমলাইনবিনোদন

শেষ পর্বে মৃত গুনগুন, ইলিশ-মটন দিয়ে ফিস্টি করে ‘খড়কুটো’কে বিদায় দিলেন তৃণা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সৌগুনের সফর শেষ। দীর্ঘদিনের পথচলা শেষ হল বুধবার। স্টার জলসার এক সময়কার অত‍্যন্ত জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘খড়কুটো’র (Khorkuto) শেষ পর্বের শুটিং সমাধা হয়েছে এদিন। সিরিয়ালের কেন্দ্রীয় চরিত্র গুনগুনের (Gungun) মৃত‍্যু দিয়েই শেষ হবে সিরিয়াল। তবুও অভিনেত্রী তৃণা সাহা (Trina Saha) দর্শকদের আর্জি জানিয়েছেন, শেষ পর্যন্ত সিরিয়ালটি দেখতে‌। এক সারপ্রাইজ রয়েছে দর্শকদের জন‍্য।

কিন্তু ভক্তদের আর কে বোঝায়? একেই প্রিয় খড়কুটো শেষ হওয়ার দুঃখ, তার উপরে গুনগুনের মৃত‍্যু শোক, দর্শকরা কাবু হয়ে পড়েছেন। আর খড়কুটো টিম? বিদায় বেলায় সেটে কী হচ্ছে? তৃণা জানিয়েছিলেন, শেষের পর্বগুলো শুট করতে কান্নায় দৃশ‍্যে আর কারোর গ্লিসারিন লাগছেই না।


দীর্ঘ দু বছর একই টিমের সঙ্গে শুটিং। পরিবারের মতো হয়ে উঠেছিলেন সকলে। তাদের সঙ্গে আর দেখা হবে না। সবারই মনে চাপা কষ্ট। কিন্তু সময় তো কারোর জন‍্য বসে থাকে না। কোনো কিছু শুরু হলে তা শেষ হবেই। সেটা মেনে নিয়েই এগিয়ে চলা।

সংবাদ মাধ‍্যমকে তৃণা জানান, মন ভাল হোক বা খারাপ, সব সময়েই তাঁদের সঙ্গী থেকেছে খাবার দাবার। আর শেষ দিনে জম্পেশ খাওয়াদাওয়া হবে না তা কি হয়? মন ভাল করতে এদিনের মেনুতে ছিল বাসমতি চালের ভাত, ইলিশ মাছের মাথা দিয়ে ডাল, মটন আর মিষ্টি।

খড়কুটোর দু বছর পূর্তির দিনেই মন ভেঙে দেওয়া উপহার পেয়েছেন দর্শকরা। ব্রেন টিউমারের অস্ত্রোপচারের সময়ে মৃত‍্যু হয়েছে গুনগুনের। শেষ দৃশ‍্য দেখে হাউহাউ করে কেঁদেছেন দর্শকরা। ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন নির্মাতাদের প্রতি। সিরিয়াল শেষ করবেন ভাল কথা, তাই বলে গুনগুনের মৃত‍্যু দিয়েই শেষ করতে হল?


কেউ আবার বলছেন, সৌগুনকে ছাড়া বাঁচবেন কীকরে? খড়কুটোর টিআরপি কমতে কম ঝড়ঝাপটা আসেনি। ন‍্যাকা মেয়ের তকমাও পেয়েছিল গুনগুন। কিন্তু অনুরাগীরা চিরকাল ঢাল হয়ে দাঁড়িয়েছে প্রিয় সিরিয়ালের। শেষ বেলায় সমস্ত ফ‍্যানপেজে উপচে পড়ছে পোস্ট। অনুরাগীদের ভালবাসাকে স্বীকৃতি দিয়েছেন তৃণাও। নিজের সোশ‍্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন সেসব পোস্ট।

তৃণা এখন ব‍্যস্ত। বড়পর্দা, ওয়েব সিরিজ ছাড়াও স্টার জলসাতেই ডান্স ডান্স জুনিয়রেও দেখা যাচ্ছে তাঁকে। সিরিয়ালে কি আর ফিরবেন না? তৃণার উত্তর, সিরিয়াল তাঁর শিকড়। সেই টান অস্বীকার করতে পারবেন না। আপাতত গুনগুনকে সঙ্গে নিয়েই নতুন প্রোজেক্টের দিকে এগিয়ে চলা তৃণার।

Related Articles