টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দলঃ চলল গোলাগুলি, প্রাণ হারালেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ জমি বিবাদের জেরে তৃণমূলের (All India Trinamool Congress) দুই গোষ্ঠীর মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ। চলল ব্যাপক গোলাগুলি এবং হাতাহতি। সকাল সকাল গঙ্গারামপুরের শুকদেবপুরের এই ঘটনায় প্রাণ হারালেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কালিপদ সরকার। অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে থাকলেও, পুলিশের দাবি হৃদযন্ত্রের গোলযোগের কারণে প্রাণ হারিয়েছেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কালিপদ সরকার। ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য গোটা এলাকায়।

ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার অর্থাৎ আজ সকালে গঙ্গারামপুরের শুকদেবপুর এলাকায়। সেখানে জমি বিবাদের জেরে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে ধুন্ধুমার বেঁধে যায়। হাঁটাহাঁটি দিয়ে শুরু হলেও, পরিস্থিতি উত্তপ্ত হলে গুলি চলেও বলে জানা গিয়েছে। সেই গোলাগুলির মধ্যে মাথায় গুলি লাগে তৃণমূল কর্মী সঞ্জিত সরকারের।

তৎক্ষণাৎ সঞ্জিত সরকারকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মালদায় রেফার করা হয়। অন্যদিকে ধারণা করা হচ্ছে জমি বিবাদের ওখানে মারপিটের ফলে মারাত্মকভাবে জখম হন কালিপদ সরকার, যিনি তৃণমূলের অন্দরে বিপ্লব অনুগামী বলে পরিচিত। সঙ্গে সঙ্গেই তাকে চিকিৎসার জন্য গঙ্গারামপুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করে দেয়।

পুলিশ এবিষয়ে জানিয়েছে, উচ্চ রক্তচাপ এবং হাই সুগারের রোগী ছিলেন ছিল দক্ষিণ দিনাজপুরের (South Dinajpur) পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মৃত কালিপদ সরকার। ওই ঝামেলার মধ্যে উপস্থিত হওয়ায় সেই কারণেই নাকি তাঁর হৃদযন্ত্রে গোলযোগ তৈরি হয়। যার ফলেই তিনি মারা গিয়েছেন। তবে গঙ্গারামপুর থানার পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত করছে। এইসকল ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ছড়াতে সেখানে বিশাল পুলিশবাহিনী এবং কমব্যাট ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে।

Back to top button