টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে বধূ নির্যাতনের অভিযোগ! কেরোসিন ঢেলে পুত্রবধূকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ নির্বাচনের আগে তৃণমূলের অস্বস্তি বাড়ালেন দলীয় বিধায়ক খগেশ্বর রায়। তৃণমূলের এই বিধায়কের ছেলে আর তাঁর পরিবারের লোকের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় গতকাল রাতে রাজগঞ্জ থানায় দ্বারাস্থ হয়েছিলেন তৃণমূল বিধায়ক খগেশ্বর রায়ের পুত্রবধূ এবং ওনার পরিবার। নির্যাতিতার পরিবার পুলিশের বিরুদ্ধেও গুরুতর অভিযোগ করেছেন। তাঁরা জানিয়েছেন যে, পুলিশ লিখিত ভাবে অভিযোগ জমা নিলেও তাঁদের কোনও রিসিভ কপি দেয়নি।

২০১৯ এর ময়নাগুড়ির বলিদাব রায়ের মেয়ে পিঙ্কির সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় তৃণমূল বিধায়ক খগেশ্বর রায়ের ছেলে দিবাকর রায়। পিঙ্কি ও তাঁর পরিবার অভিযোগ করে বলেন যে, বিয়ের পর থেকে পণের দাবিতে তাঁর উপর অত্যাচার করা শুরু করে বিধায়কের পরিবার।

পিঙ্কি জানান, বিয়ের কিছুদিন পর থেকে তাঁর বর দিবাকর আর পরিবারের অন্য সদস্যরা বাপের বাড়িতে থেকে টাকা আনার জন্য তাঁর উপর অত্যাচার করা শুরু করে। পিঙ্কি জানান, পণের টাকার জন্য বিধায়ক খগেশ্বর আর তাঁর বর দিবাকর প্রায় দিনই মদ্যপ অবস্থায় তাকে গালিগালাজ করত।

পিঙ্কি অভিযোগ করে বলেন, এরপর তাঁর শাশুড়িও তাঁর উপর অত্যাচার করা শুরু করে দেয়। এমনকি ২৭ আগস্ট তাঁর গাঁয়ে কেরোসিন ঢেলে দেয়। শাশুড়ি আগুন জ্বালানোর জন্য দেশলাই আনতে গেলে পিঙ্কি কোনওমতে সেখান থেকে পালিয়ে বাপের বাড়ি চলে যায়। এরপর অনেকবার মিমাংসার চেষ্টা করা হলেও সমস্যার সমাধান হয়নি। পিঙ্কি জানান, শ্বশুর রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে আমাকে আর আমার পরিবারকে হুমকি দিত।

যদিও এটাই প্রথম না, এর আগেও বিতর্কে জড়িয়েছিলেন রাজগঞ্জের বিধায়ক খগেশ্বর রায়। এর আগে রাজগঞ্জ গ্রামীণ হাসপাতালের এক নার্সের শ্লীলতাহানিতে নাম জড়িয়েছিল বিধায়কের।

Back to top button