টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

ভুয়ো খবর ছড়ানোর জের! একাধিক পাকিস্তানি দূতাবাসের টুইটার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করল ভারত

বাংলা হান্ট ডেস্ক: সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট, টুইটার এবার পাকিস্তানের একাধিক দূতাবাসের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টগুলি ভারতে বন্ধ করে দিয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে পাকিস্তানের তুরস্ক, মিশর, ইরান এবং জাতিসংঘের দূতাবাসের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট। এর আগে, পাকিস্তানের জাতীয় সম্প্রচারকারী “রেডিও পাকিস্তান”-এর টুইটার অ্যাকাউন্টও সংস্থাটি নিষিদ্ধ করেছিল। এদিকে, ভারতে টুইটার এই অফিসিয়াল অ্যাকাউন্টগুলি বন্ধ করার পরে পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রণালয় টুইটারকে অবিলম্বে এই অ্যাকাউন্টগুলি পুনরুদ্ধার করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে। মূলত, ভুয়ো এবং উত্তেজক খবর ছড়ানোর জন্যই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা, বৈদেশিক সম্পর্ক এবং আইনশৃঙ্খলা সম্পর্কিত বিভ্রান্তি ছড়ানোর জন্য ৬ টি পাকিস্তান-ভিত্তিক চ্যানেল সহ ১৬ টি ইউটিউব নিউজ চ্যানেলকে ব্লক করেছিল তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক। মন্ত্রকের মতে, ওই ইউটিউব চ্যানেলগুলি ভারতে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে ও সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টি করার লক্ষ্যে ভুয়ো তথ্য পেশ করেছিল।

ব্লক করা ওই চ্যানেলেগুলির মধ্যে ছয়টি পাকিস্তান-ভিত্তিক এবং ১০ টি ভারত-ভিত্তিক ইউটিউব নিউজ চ্যানেল রয়েছে বলে জানা গিয়েছিল। যেগুলির দর্শকসংখ্যা ছিল প্রায় ৬৮ কোটিরও বেশি। এমতাবস্থায়, IT আইনের ১৮ নম্বর নিয়ম অনুযায়ী, ওই চ্যানেলগুলি প্রয়োজনীয় তথ্য মন্ত্রণালয়কে সরবরাহ করেনি বলে সরকার জানায়।

উল্লেখ্য যে, ভারত এর আগেও ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামের মতো সামাজিক মিডিয়াকে ব্যবহার করে ভুয়ো খবর প্রচারের জন্য পাকিস্তানকে সতর্ক করেছিল। তবুও, ডিজিটাল ফরেনসিকের রিপোর্ট অনুসারে, পাকিস্তান বিশ্ব মঞ্চে ভারতকে ছোট করার জন্য তার প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে।

এমতাবস্থায়, ডিজিটাল ফরেনসিক, রিসার্চ এবং অ্যানালিটিক্স সেন্টার (ডিএফআরএসি)-এর একটি প্রতিবেদন অনুসারে জানা গিয়েছে, পাকিস্তানে সরকারি অ্যাকাউন্ট ছাড়াও, পাকিস্তানিদের দ্বারা তৈরি অনেক জাল অ্যাকাউন্ট পর্দার আড়ালে লুকিয়ে রয়েছে এবং ভারতের মর্যাদাপূর্ণ প্রতিষ্ঠানগুলিকে লক্ষ্য করার এজেন্ডা নিয়ে হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করছে। এই পাকিস্তানি অ্যাকাউন্টগুলি স্পষ্টতই ভুল তথ্য ছড়ায়। এমতাবস্থায়, টুইটারের এহেন পদক্ষেপ ভারতের জন্য নিঃসন্দেহে একটি বড় বিষয়।

Related Articles

Back to top button