fbpx
টাইমলাইনভারত

দেহের ৯০ শতাংশ পুড়ে যাওয়ার পরেও ১ কিমি দৌড়ে নিজেই ১০০ নম্বরে ডায়েল করেছিল ধর্ষিতা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ গণধর্ষণ করে মহিলাকে জ্যান্ত জ্বালিয়ে দেওয়ার মামলায় (Unnao Gangrape) এক প্রতক্ষ্যদর্শীর বয়ান সামনে এসেছে। প্রতক্ষ্যদর্শী রবিন্দ্র প্রকাশ জানান, ‘নির্যাতিতার গায়ে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার পর প্রায় এক কিমি পর্যন্ত প্রাণ বাঁচাতে আর সাহাজ্য চাইতে এসেছিল তাঁর কাছে। এরপর ফন থেকে নির্যাতিতা নিজেই ফোন থেকে ১০০ নম্বর ডায়েল করে পুলিশকে ঘটনার ব্যাপারে জানায়। নির্যাতিতার সাথে কথা বলার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

রবিন্দ্র প্রকাশ জানান, নির্যাতিতা দৌড়ে আসছিল আর বাঁচাও বাঁচাও চিল্লাছিল। যখন আমি জিজ্ঞাসা করলাম কে? তখন সে নিজের পরিচয় জানায়। রবিন্দ্র জানান, ‘নির্যাতিতা সম্পূর্ণ ভাবে পুড়ে গেছিল। আমি প্রথমে তাঁকে ভূত ভেবেছিলাম। আমি পালিয়ে ডাণ্ডা হাতে নিয়েছিলাম, আর কুড়াল আনার জন্য চিৎকার করছিলাম।” রবিন্দ্র আরও জানান, ‘ পরিচয় জানার পরেও আমার ভয় কম হয়নি, আর আমি তাঁর থেকে দূরেই দাঁড়িয়েছিলাম। এরপর নির্যাতিতা আমার কাছে ফোন চায় আর নিজেই ১০০ নম্বরে ডায়েল করে কথা বলে, এরপর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাঁকে নিয়ে চলে যায়।”

আরেকদিকে পুলিশ এই ঘটনায় দুজনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে নেয়। নির্যাতিতার বয়ানের ভিত্তিতে অভিযুক্তদের দোষী সাব্যস্ত করা হয়। আর তাঁদের বিরুদ্ধে ৩০৭, ৩২৬, ৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়।

Back to top button
Close