টাইমলাইনবিধানসভা নির্বাচনবিনোদনরাজনীতি

তালিকা প্রকাশের পরেই বিক্ষোভ, তৃণমূলের অন্দরেই রাজ-সায়ন্তিকাকে ‘বহিরাগত’ তকমা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: শুক্রবার ২৯১টি আসনে প্রার্থী তালিকা ঘোষনা করে তৃণমূল (tmc)। এবারে সকলকে চমকে দিয়ে বেশ কয়েকজন চেনা রাজনৈতিক মুখকেই প্রার্থী করেনি সবুজ শিবির। বদলে এবার প্রার্থী তালিকায় রয়েছে একাধিক তারকা যারা সদ‍্যই যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে। প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পরপরই এই তারকা প্রার্থীদের বিরুদ্ধে শুরু হয়েছে বিক্ষোভ।

চেনা বিধায়কদের টিকিট না দিয়ে তারকা প্রার্থীদের কেন দেওয়া হল? প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূলের একাংশ। রাজ চক্রবর্তী (raj chakraborty), সায়ন্তিকা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায় (sayantika banerjee), সায়নী ঘোষকে দেওয়া হয়েছে ‘বহিরাগত’ তকমা। বাঁকুড়া থেকে এবার প্রার্থী করা হয়েছে সায়ন্তিকাকে। এতে রীতিমতো ক্ষুব্ধ বাঁকুড়ার বিদায়ী তৃণমূল বিধায়ক শম্পা দরিপা।


তাঁর অভিযোগ, অভিষেক বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়, প্রশান্ত কিশোর বিশেষভাবে তাঁকে ডেকে পাঠিয়েছিলেন। তাঁকে নিশ্চিত করা হয়েছিল। শম্পার কথায়, “মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায় এটা ভাবলেন না যে বাঁকুড়াও তাঁর নিজের মেয়েকেই চায়? এই যে বহিরাগত, দুদিন আগে যোগ দিয়ে আজ প্রার্থী হয়েছে। কোনোদিন বন্দে মাতরম বলেনি, তৃণমূল কংগ্রেস জিন্দাবাদ বলেনি, মানুষের সঙ্গে মেশেনি। মানুষের দুঃখ কষ্ট এরা কি বুঝবে? ”

ব‍্যারাকপুরে উত্তম দাসকে প্রার্থী কেন করা হল না তা নিয়ে বিক্ষোভ দেখান তাঁর অনুগামীরা। রাজকে দেওয়া হয় বহিরাগত তকমা। এই বিষয়ে পরিচালক বলেন, “আমি বহিরাগত নই। আমার বাড়ি ওখানেই। আমরা বাংলার মানুষ বাংলার জন‍্যই ভাবি। সব দলেই মতবিরোধ থাকে। পরিবারের মধ‍্যেই এসব হয়। ভালবাসা দিয়ে সব ক্ষোভ মিটিয়ে নেব।”

আসানসোল দক্ষিণে সায়নী ঘোষকে প্রার্থী করায় সেখানেও দেখা দিয়েছে ক্ষোভ। লক্ষণ ঠাকুরকে টিকিট কেন দেওয়া হল না তা নিয়ে প্রশ্ন তোলে তৃণমূলের একাংশ। তবে কিছু জায়গায় সায়নী ঘোষের সমর্থনে ইতিমধ‍্যেই শুরু হয়েছে দেওয়াল লিখন।

Back to top button