টাইমলাইনভারত

বাবা ছিল আতঙ্কবাদী, পড়াশোনা করে ছেলে হলো KAS অফিসার, সম্মান জানালো সেনা !

video : একসময় সন্ত্রাসবাদের শক্ত ঘাঁটি ছিল ডোদা জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল গুন্ডা। কিন্তু আজ সেখান থেকেই দেশসেবার কাজে ব্রতী হয়েছেন KAS অফিসার গাজি আবদুল্লাহ। গাজির পিতা ছিলেন একজন জঙ্গি। সংঘর্ষে পিতার মৃত্যুর পর গাজি অনাথ আশ্রমে বড় হয়েছে। সেখান থেকেই লড়াই করে সে আজ দেশসেবায় নিজেকে ব্রতী করেছে।

Ghazi Abdullah kas officer Bangla Hunt Bengali News

গাজি আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করার পর, তিনি জম্মু ও কাশ্মীরের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ KAS পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন।  সেনাবাহিনী তার এই কৃতিত্বকে  সম্মান জানিয়ে একটি বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল।  এই অনুষ্ঠানে গাজী আবদুল্লাহ স্কুল ছাত্রদের তার জীবন সংগ্রামের গল্প শোনান।

সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে যিনি অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করছিলেন তিনি  বলেন যে কঠোর পরিশ্রম ভাগ্যকে কীভাবে পরিবর্তন করতে পারে তার একটি উদাহরণ গাজী আবদুল্লাহ।  সন্ত্রাস, দারিদ্র্য ও প্রতিকূলতার মুখোমুখি গাজী মর্যাদাপূর্ণ কেএএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন।

শিক্ষার্থীরা যখন গাজীর কাছ থেকে তার সাফল্যের মন্ত্র জানতে চায়, তখন গাজী আবদুল্লাহ বলেছিলেন যে কঠোর পরিশ্রম এবং প্রশিক্ষণ নিলে কিছুই অসম্ভব নয়।  গন্তব্যে পৌঁছাতে দৃঢ় প্রত্যয়ী উদ্দেশ্য প্রয়োজন ।  গাজী বলেন, বর্তমানে শিক্ষার অ্যাক্সেস খুব সহজ হয়ে গেছে।  যে কোনও অঞ্চল থেকে, যুবকরা কঠোর পরিশ্রম এবং উত্সর্গ দিয়ে তাদের লক্ষ্য অর্জন করতে পারে।

বলা বাহুল্য, জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের আঁতুর ঘর কাশ্মীরের যুবদের জন্য আবদুল্লাহ হয়ে উঠেছেন অনুপ্রেরণা। তার দেখানো পথ বেয়ে দেশ সেবায় আরো এগিয়ে আসবে নবীন কাশ্মীরিরাও

 

Back to top button