টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গভিডিওরাজনীতি

জনসংযোগ বাড়াতে আচমকাই ষোলআনা মসজিদে হাজির মুখ্যমন্ত্রী, বললেন ইমামদের সঙ্গে কথা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ আর মাত্র কয়েকদিন, এরপরেই ভবানীপুরে উপনির্বাচন। জোরকদমে প্রচার শুরু করেছে শাসক-বিরোধী সবদলই। আর সেই প্রচারের মাঝে জনসংযোগ বাড়াতে আজ একবালপুরে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এলাকাবাসীর সঙ্গে কথাও বললেন তিনি। স্থানীয়দের অভাব-অভিযোগের কথা মন দিয়ে শুনলেন মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তিনি এলাকার বিখ্যাত ষোলআনা মসজিদে জান। সেখানে গিয়ে মসজিদের ইমামদের সঙ্গে কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

আচমকাই মসজিদ ভ্রমণে স্থানীয়রা ব্যস্ত হয়ে পড়েন। পাশাপাশি তাঁরা মুখ্যমন্ত্রীকে হাতের সামনে পেয়ে বেশ খুশিও হন। মুখ্যমন্ত্রীর এই ঝটিকা সফরে জমজমাট হয়ে ওঠে একবালপুরের ৭৭ নম্বর ওয়ার্ড। ওনার সঙ্গে আজ ওনার সঙ্গী ছিলেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

উল্লেখ্য, ভবানীপুরের উপনির্বাচনের পাশাপাশি রাজ্যে করোনার বাড়বাড়ন্ত নিয়ে উদ্বিগ্ন মুখ্যমন্ত্রী। আর সেই কারণে নিজ কেন্দ্রে বড় জনসভা করার বদলে বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষের সঙ্গে জনসংযোগ করায় মন দিয়েছেন তিনি। সবার সঙ্গে কথা বলা আর পায়ে হেঁটে এলাকা পরিদর্শন করায় সকলের মনও জয় করে নিচ্ছেন ঘরের মেয়ে।

অন্যদিকে, আজ ভবানীপুর কেন্দ্র থেকে মনোনয়ন জমা দিলেন বিজেপির প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল। শুভেন্দু অধিকারী, অর্জুন সিংদের নিয়ে মিছিল করে লাল পাড় সাদা শাড়ি পড়ে ভবানীপুরের গোল মন্দিরে পুজো দিয়েই আলিপুরে মনোনয়ন জমা দেন প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল।

মনোনয়ন জমা দেওয়ার দিনই এক দুঃসংবাদ পেলেন প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল। পেলেন ভাইকে হারানোর শোকসংবাদ। লিভারের সমস্যার কারণে হায়দ্রাবাদের একটি হাসপাতালে চিকিৎসা চলছিল প্রিয়াঙ্কার বছর ৩৬ -র ভাই পীযূষ শর্মার। লিভার প্রতিস্থাপন করালেও, শেষরক্ষা হয় না।

ভাইয়ের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে ভেঙে পড়েন প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল। আগামী ৩০ শে সেপ্টেম্বর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী তিনি। কিন্তু তার আগে লড়াইয়ের ময়দানে পা রাখতেই এক বড় দুঃসংবাদ পেলেন এই গেরুয়া শিবিরের প্রার্থী।

Related Articles

Back to top button