টাইমলাইনবিনোদন

অক্ষয়ই সব, পাঁচ জন নায়িকা কি খেলনা ছিল? বলিউডে অভিনেত্রীদের প্রতি বঞ্চনা নিয়ে সরব বিদ্যা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: মহিলাদের সমানাধিকার নিয়ে সর্বত্র আলোচনা হচ্ছে। প্রতিটি কাজে পুরুষদের সমান সম্মান এবং গুরুত্ব প্রাপ্য মহিলাদের, বিষয়টা এখন গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা হচ্ছে। অথচ বলিউডে (Bollywood) যেন চিত্রটা অন্য রকম। সেখানে এখনো নায়কদের সমান পারিশ্রমিক দেওয়া হয় না নায়িকাদের। ছবিতে সবসময় সমান গুরুত্বও পান না অভিনেত্রীরা। বিষয়টা নিয়ে এবার প্রতিবাদে সোচ্চার হলেন বিদ্যা বালান (Vidya Balan)।

২০১৯ এর ছবি ‘মিশন মঙ্গল’কে অক্ষয় কুমারের (Akshay Kumar) ছবি বলায় রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। ওই ছবিতে তিনি সহ আরো চার জন অভিনেত্রী ছিলেন। তাঁদের কথা একবারও উল্লেখ করা হয় না কেন? প্রশ্ন তোলেন বিদ্যা। অভিনেত্রীদের মুখ্য চরিত্রে না দেখে ছবিটিকে শুধু অক্ষয়ের বলাটা দুর্ভাগ্যজনক বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মিশন মঙ্গল ছবিতে বিদ্যা ছাড়া ছিলেন সোনাক্ষী সিনহা, তাপসী পন্নু, কীর্তি কুলহারি এবং নিত্যা মেনন। কিন্তু পাঁচ পাঁচ জন অভিনেত্রী পার্শ্ব চরিত্র হয়েই থেকে গিয়েছেন। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বিদ্যা বলেন, করোনা অতিমারির পর বলিউড একটা খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। বহু ছবিই বাজে ভাবে ফ্লপ হচ্ছে বক্স অফিসে। এমন পরিস্থিতিতে অনেকেই একটা অজুহাত পেয়েছেন এটা বলার জন্য যে নারীকেন্দ্রিক ছবি আর চলবে না।

কিন্তু বিদ্যা মনে করিয়ে দিয়েছেন, যেসব ছবি ফ্লপ হচ্ছে সেগুলো কিন্তু তথাকথিত পুরুষকেন্দ্রিক ছবি। অথচ আলিয়া ভাট অভিনীত ‘গাঙ্গুবাঈ কাঠিয়াবাদি’ কিন্তু মহিলাকেন্দ্রিক ছবি হয়েও আর পাঁচটা ছবির থেকে ভাল ব্যবসা করেছিল। এরপরেই মিশন মঙ্গলের প্রসঙ্গ তোলেন বিদ্যা।

তাঁর কথায়, “মিশন মঙ্গলের মতো একটা ছবি যা কিনা খুব ভাল ব্যবসা করেছিল, সেটাও অক্ষয় কুমারের ছবি হিসাবেই দেখা হবে। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। অক্ষয় কুমারের সঙ্গে পাঁচ নায়িকার নাম আসবে না, কারণ আমরা ছবিটিকে নেতৃত্ব দিইনি। কিন্তু গল্পটা তো শুধু অক্ষয়কে নিয়ে বলা সম্ভব ছিল না। আর সেটা বলা হয়ওনি।”

তবুও বিদ্যা সহ বাকি চার অভিনেত্রী যেন অদৃশ্য হয়েই থেকে গিয়েছেন ওই ছবিতে। বিদ্যার হিট ছবিগুলির মধ্যে মিশন মঙ্গলকে ধরা হয় না। এক সাক্ষাৎকারেই নাকি এমন অভিজ্ঞতা হয়েছিল তাঁর। বলিউডে এই পুরুষ মহিলার মধ্যে বৈষম্য এবার দূর হওয়া উচিত বলেই মনে করেন অভিনেত্রী।

Related Articles