টাইমলাইনভারত

ফ্রান্সের বিরোধিতা করায় কংগ্রেস বিধায়কের কলেজ ভাঙল মধ্যপ্রদেশ সরকার

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপালে কংগ্রেস বিধায়ক আরিফ মাসুদের কলেজে বুলডোজার চালাল প্রশাসন। বিধায়কের কলেজের উপর অ্যাকশন নিয়ে অবৈধ নির্মাণ ধ্বস্ত করে দেওয়া হয়। আরেকদিকে, বিধায়কের সমর্থক দ্বারা প্রদর্শনের আশঙ্কার কথা মাথায় রেখে প্রচুর পরিমাণে পুলিশ মোতায়েন করা হয় এলাকায়। উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে ভোপালে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে প্রদর্শনের সময় কংগ্রেসের বিধায়ক আরিফ মাসুদের বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িকতা ছড়ানোর অভিযোগ উঠেছিল।

প্রসঙ্গত, কংগ্রেসের বিধায়কের এই কলেজ ভোপালের খানুগাওয়ে তৈরি হচ্ছিল। প্রশাসন এই কলেজের অবৈধ নির্মাণকে ধ্বস্ত করে দেয়। বিধায়কের সমর্থক দ্বারা বিক্ষোভের কথা মাথায় রেখে প্রশাসন আগে থেকেই প্রচুর পুলিশ মোতায়েন করে রেখেছিল। ডিআইজি ইরশাদ বলী বলেন, বিধায়কের বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ ওনার অবৈধ কাজের জন্যই নেওয়া হয়েছে।

আরেকদিকে, বিধায়কের সমর্থকেরা এই ঘটনার পর রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে স্লোগানবাজি করে, আর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানকে স্বৈরাচারী বলে আখ্যা দেয়। যদিও, প্রচুর পুলিশ মোতায়েন থাকার কারণে বিধায়কের সমর্থকদের সেখান থেকে হটিয়ে দেওয়া হয়।

ভোপাল মধ্য থেকে বিধায়ক আরিফ মাসুদের উপর অভিযোগ উঠেছিল যে, তিনি ভিড় একত্রিত করে রাজধানীর একবাল ময়দানে ফ্রান্সের পতাকা আর রাষ্ট্রপতির ছবি জ্বালিয়েছে। আর সেই বিক্ষোভ সমাবেশে মাসুদ নিজের ভাষণে বলেছিলেন যে, কেন্দ্র আর রাজ্যের হিন্দুত্ববাদী সরকার ফ্রান্সের এই কাজের সমর্থন করছে।

তিনি ফ্রান্সের সাথে সাথে ভারত সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন যে, ভারত সরকার যদি ফ্রান্সের বিরোধিতা না করে, তাহলে আমরা ভারতকে বুঝিয়ে দেব কি করতে পারি। এরপর পুলিশ মাসুদ সমেত সাতজনের বিরুদ্ধে ধারা ১৪৪ আর উস্কানি দেওয়ায় মামলা দায়ের করে।

Back to top button