টাইমলাইনভারত

ভাইরাল ভিডিওঃ করোনা আতঙ্কে ৬০০০ হাজার মুরগীকে জ্যান্ত মাটিতে পুঁতে দিলেন ব্যবসায়ী

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ করোনা ভাইরাসের (Corona Vairas) ভয়ে বিশ্ববাসী আতঙ্কগ্রস্ত। বিশ্বের প্রায় ১০০ এরও বেশি দেশে এই মারণরোগ ছড়িয়ে পড়েছে। ভারতেও (India) এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৬২ জন। ধারণা করা হয়েছিল মুরগীর মাংস (Chicken) থেকে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে। সেই কারণে মুরগীর মাংস খাওয়া প্রায় ছেড়েই দিয়েছে সকলে। এর ফলে প্রভূত ক্ষতির সমুখীন হয়েছেন মুরগী বিক্রেতারা। এই পরিস্থিতিতে কর্ণাটকের (Karnataka) মুরগী চাষীরা এক কঠিন পদক্ষেপ গ্রহণ করলেন। একসঙ্গে জ্যান্ত অবস্থায় পুঁতে দিলেন প্রায় ৬০০০ মুরগী।

চীন (Chaina) ছাড়িয়ে করোনা ভাইরাস বিশ্বের প্রায় সব দেশেই ছড়িয়ে পড়েছে। প্রায় ৪ হাজাররেও বেশি মানুষ এখনও পর্যন্ত এই রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন। সরকারী দিক থেকেও এই রোগের হাত থেকে বাঁচার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছিল,এরাজ্যে মুরগীর মাংস থেকে করোনা ভাইরাস ব্যপকভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

মঙ্গলবার দেশের খাদ্য সুরক্ষা ও মান নিয়ামক সংস্থা বা এফ এস এস এ আই এক বিবৃতি দিয়ে স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দিলেন যে, মুরগীর মাংস বা ডিম খেলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা নেই। বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যেম তাঁরা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হন যে জীবজন্তুর মাধ্যেম এই রোগ ছড়াচ্ছে না। আর খাবার রান্না করার সময় সেটা ভালো করে ধুয়ে ভালো করে সেদ্ধ করে রান্না করলে, আর কোন সমস্যা থাকে না।

 

এই বিজ্ঞপ্তি জারি হওয়ার পূর্বেই কর্ণাটকের বেলাগবি জেলার গোককের চাষী নজির আহমেদ মরন্দর, সোমবার একটি ট্রাকে ৬০০০ হাজার মুরগী নিয়ে গিয়ে একটি মাঠের মধ্যে গর্ত করে সেখানে জ্যান্ত মুরগিগুলোকে চাপা দেন। মুরগীর ব্যবসায় প্রভূত ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে এই কাজ করতে বাধ্য হন তিনি। সাধারণ মানুষ এখন মুরগীর মাংস খাওয়া প্রায় ছেড়েই দিয়েছে। আমিষের থেকে এখন নিরামিষ খেতে বেশি পছন্দ করছে মানুষ। তাই মুরগীর ব্যবসা ছেড়ে দিয়ে অনেক ব্যবসায়ী এখন সবজির ব্যবসাও শুরু করেছে।

Back to top button