টাইমলাইনভাইরাল

নৌকা বাইতে বাইতেই গান ধরল কিশোর, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিওতে প্রশংসার বন্যা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ বাংলার আনাচে কানাচে যে কত প্রতিভা ছড়িয়ে আছে তার সঠিক খবর আমরা রাখি না। সামাজিক মাধ্যমের দৌলতে এমন অনেক প্রতিভাই এখন যথেষ্ট সম্মান ও সুযোগ পাচ্ছে। আরো একবার সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল (viral) হল নতুন প্রতিভা। বৈঠা বাইতে বাইতে যার খোলা গলায় বাউল গানে মোহিত হল নেটপাড়া।

বর্তমান যুগ সামাজিক মাধ্যমের যুগ। স্মার্ট ফোনে ধারন যে কোনো ছবি বা ভিডিও সারা বিশ্বের সাথে ভাগ করে নেন নেট পাড়ার বাসিন্দারা। আর সেই ভাইরাল ছবি বা ভিডিও এর জেরেই রাতারাতি তারকা বা খলনায়ক বনে যায় যে কেউ। আবার কোনো কোনো ভিডিও ও ছবি যেমন নেটপাড়াকে ভাবিয়ে তোলে তেমনই অনেক পোস্ট খারাপ সময়েও মন ভাল করে দেয়।

ভিডিওটি কোন অঞ্চলের তা জানা যায় নি। পঙ্কজ দাস নামের এক নেটিজেন ভিডিওটি পোস্ট করে লিখেছেন,নাঈম, আমার বাড়ির পাশেই তার বাড়ি। একটা ভাল প্রতিভা লালন করছে সে। তার স্বপ্ন এই গান দিয়ে অনেক কিছু করতে চায়, কিন্তু একটা প্লাটফর্ম এর অভাব। ভিডিও টা গত বর্ষায় ধারণ করা। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে ছাই রঙের হাফপ্যান্ট ও রংবেরিঙের হাফ প্যান্টে গান ধরেছে ঐ খুদে। হাসন রাজার লোকগীতি নৌকা চালাতে চালাতেই অবলীলায়। গাইছে সে যা সামাজিক মাধ্যমে প্রশংসা কুড়িয়েছে

এর আগে বাংলাদেশের শ্রীহট্ট (সিলেট) অঞ্চলের একটি  ভিডিও ভাইরাল হয়। যেখানে এক ১৩ – ১৪ বছরের কিশোরকে দেখা যায় যাত্রী বোঝাই একটি নৌকা বাইতে। বৈঠা হাতেই সে ” বন্ধু মায়া লাগাইছে / পিরিতি শিখাইছে ” গানটি শুরু করে। সম্ভবত সেই গানটি ভিডিও করে নৌকারই কোনো যাত্রী। পরে তিনি সামাজিক মাধ্যমে ভিডিওটি ছেড়ে দিলে তুমুল গতিতে ভাইরাল হয়।

ইতিমধ্যেই মঈনুদ্দিন নামের এই অখ্যাত কিশোরের গানের ভক্ত নেট পাড়া। একজন নেটিজেন ভিডিওটি শেয়ার করে দাবি করেছেন, তিনি অন্তত ৪০ বার ভাইরাল ভিডিওটি দেখেছেন, প্রতিবারই তিনি মুগ্ধ হয়েছেন। দেখে নিন ভাইরাল ভিডিওটি।

 

Back to top button