টাইমলাইনভাইরাল

ভাইরাল ভিডিও: লকডাউনে সাইকেল কিনে দেওয়ার ক্ষমতা ছিল না বাবার, অষ্টম শ্রেণির ছাত্র নিজেই বানিয়ে ফেলল সাইকেল ও স্কুটারের ‘হাঁসজারু’

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ‘হাঁস ছিল, সজারু, (ব্যাকরণ মানি না),/হয়ে গেলে ‘হাঁসজারু’ কেমনে তা জানি না।’ সুকুমার রায়ের এই কালজয়ী কবিতা পড়েনি এমন বাঙালি পাঠল খুঁজে বের করা মুস্কিল। সাইকেল ও স্কুটারের এমনই অদ্ভুত সংকর যান বানিয়ে ফেলল পাঞ্জাবের এক তরুন। যা দেখে অবাক সকলেই।

জানা যাচ্ছে, লকডাউনে সাইকেল কিনে দেওয়ার জন্য বায়না ধরেছিল পাঞ্জাবের ঐ ছেলে। কিন্তু আর্থিক অনটনের জেরে সাইকেল কিনে দিতে পারেননি বাবা। কিন্তু তার বদলে পিতা পুত্র মিলে লেগে যান নিজেদের মত সাইকেল বানাতে। যার ফলে তৈরি হয়েছে সামনের দিক থেকে স্কুটার ও পিছনের অংশ সাইকেল, এমন একটি ‘হাঁসজারু’৷ আর সেই সাইকেল চালিয়েই দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছে ঐ তরুন।

সংবাদ সংস্থা ANI এই ভিডিওটি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করতেই তুমুল ভাইরাল হয়ে যায়। ইতিমধ্যেই ৭০ হাজার নেট জনতা দেখে ফেলেছেন এই ভিডিওটি। ভিডিওতে দেখা যায় হলুদ রঙের পোশাক ও কালো পাগরিতে সাইকেল চালাচ্ছে ঐ তরুন। হারমোনজৎ নামের ঐ তরুনের সাইকেলটি ইতিমধ্যেই নেটদুনিয়ায় আলোচনার কেন্দ্রে চলে এসেছে।

কিছুদিন আগেই, করোনা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমাতে এক অভিনব পদ্ধতি অবলম্বন করেছিলেন এক দুধ বিক্রেতা৷ সেই ছবি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট হতেই মুহুর্তে ভাইরাল হিয়েছিল। বাইকের পিছন দিকে অনেকগুলি দুধের ট্যাঙ্ক বাঁধা রয়েছে। সেগুলির মাঝখান থেকে একটি ফানেল রেখেছেন তিনি। সেটি একটি পাইপের সঙ্গে সংযুক্ত। ওই ফানেলে দুধ ঢালছেন, পাইপের মাধ্যমে তা সোজা ক্রেতার বাটির মধ্যে গিয়ে পড়ছে। তার ফলে ক্রেতার সঙ্গে বিক্রেতার দূরত্ব রয়েছে বেশ খানিকটা। তার ফলে করোনা সংক্রমণের সময় সংস্পর্শে আসার প্রয়োজনীয়তাই প্রায় থাকছে না।

Related Articles

Back to top button