বঙ্গহোম পেজ

দ্বিতীয় দফার আগে কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুটমার্চ

 

মঞ্জুরুল অালম, দক্ষিণ দিনাজপুর, ১৫ এপ্রিল :- দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার সংবাদ প্রতিনিধি সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে তার চোখে পড়ল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমন্ডি ব্লকের বিভিন্ন গ্রামে এক সেকশন কেন্দ্রীয় বাহিনীর টহলদারি। পাশাপাশি দেখা গেল শান্তিতে ও সুষ্ঠুভাবে ভোট করার লক্ষ্যে বিভিন্ন বুথ ও গ্রামে ঐ কেন্দ্রীয় বাহিনীর জোওয়ানরা টহলদারি ও রুটমার্চ করার চিত্র। কেন্দ্রীয় বাহিনীর জোওয়ানদের পথনির্দেশক হিসাবে ছিলেন কুশমন্ডি থানার দুই জন এ.এস.অাই মানিক সরকার ও দ্বীজেন মার্ডি।

সংবাদ প্রতিনিধি কেন্দ্রীয় বাহিনীর জোওয়ানদের সঙ্গে জিজ্ঞাসাবাদে কোনো মন্তব্য করতে চাননি। জোওয়ানরা এতটুকুই শুধু বলেন, অামরা নির্বাচন কমিশনের লোক,কমিশনের নির্দেশে এসেছি।

গত পঞ্চায়েত ভোটের সময় কুশমন্ডি বিধানসভা কেন্দ্রের যে অঞ্চলগুলি যথেষ্ট উত্তপ্ত ছিল, সেই তথ্য কমিশনের কাছে ছিলই। তাই এবারে লোকসভা ভোটে অশান্তি মোকাবিলায় বার্তি তৎপরতা রয়েছে কুশমন্ডিতে এক সেকশন কেন্দ্রীয় বাহিনী ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পুলিশ প্রশাসনের।

সকাল অানুমানিক সাড়ে অাটটায় কুশমন্ডি থানার ঐ দুই জন এ.এস.অাই কেন্দ্রীয় বাহিনীর জোওয়ানদের নিয়ে প্রথমে চলে যান কুশমন্ডি ব্লকের ৮ নং অঞ্চলের লোহাগঞ্জ এলাকার বিভিন্ন গ্রামে ও বুথে। সেখান থেকে ফিরে এসে ৪ নং অঞ্চল এলাকার মঙ্গলপুরে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জোওয়ানরা রুটমার্চ করেন। পরবর্তীতে যথাক্রমে তেতুলপুকুর, মিরাপাড়া গ্রামে যান। কেন্দ্রীয় বাহিনীর জোওয়ানরা এলাকার জনতার কাছে গিয়ে তাদের মতামত শোনেন। এও লক্ষ্য করা গেল কুশমন্ডি পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঐ দুই এ.এস.অাই জনতার হাতে টোকেন বিলি করছেন, ঐ টোকেনে কী লেখা ছিল? টোকন দেখে বোঝা গেল ঐ টোকনে প্রশাসনের কতকগুলি ফোন নম্বর লেখা অাছে – উদ্দেশ্য কোথাও কোনো অশান্তি, সন্ত্রাস, ছাপ্পা ভোট এই ধরনের কোনো ঘটনা চোখে পড়লে বা কানে শুনলে টোকনে দেওয়া ফোন নম্বরে ফোন করলে নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসন তৎখনাত ও অতিদ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

কুশমন্ডি থানা থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জোওয়ানরা চলে গেলে সংবাদ প্রতিনিধি বিস্তারিত খবর জানতে গেলে কুশমন্ডি থানার এস.অাই সাতকার সাংবো জানান কুশমন্ডিতে এক সেকশন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জোওয়ান অাজ কুশমন্ডিতে এসেছেন। গত একদিন অাগে কুশমন্ডিতে এসে কাঁটাবাড়ি, দেহাবন্দ, সমসিয়া গ্রামে টহলদারি করেছিলেন। এর চেয়ে অন্য বেশি কিছু বলেননি।

গোপন সূত্রের খবর অনুযায়ী দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় সম্ভাব্য সাত কোম্পানি, তার মধ্যে পাঁচ কোম্পানি নাগা জোরওয়ান ও দুই কোম্পানি ত্রিপুরা জোওয়ান অাসার কথা অাছে বলে খবর।

Leave a Reply

Close
Close