টাইমলাইনবিশেষআন্তর্জাতিক

‘নেপালকে হিন্দু রাষ্ট্রে পরিণত করতে আমরা মরতেও রাজী’, রাস্তায় নামল সাধারণ মানুষের ঢল

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ কিছুবছর আগে অবধিও নেপাল (nepal) বিশ্বের একমাত্র হিন্দু রাষ্ট্র হিসাবে পরিচিত ছিল। কিন্তু তবে ২৪০ বছরের রাজতন্ত্রের অবসান ঘটিয়ে ২০০৮ সালে প্রজাতন্ত্রী রাষ্ট্রে পরিণত হওয়ার পর ২০১৫ সালে নেপালে নতুন সংবিধান গৃহীত হয়। এরপর থেকেই নানারকম সমস্যা দেখা দিতে থাকে।

বর্তমান সময়ে নেপালের রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। নেপালকে হিন্দু রাষ্ট্রে পরিণত করতে আবারও রাজধানী কাঠমান্ডুর পথে নেমেছেন সাধারণ মানুষ। বিভিন্ন মিছিল, সমাবেশের মাধ্যমে নেপালের বিভিন্ন জায়গায় চলছে হিন্দু রাষ্ট্রের সমর্থনের প্রতিবাদ।

এই উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে নেপালের প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী কমল থাপা (Kamal Thapa) সাংবিধানিক রাজতন্ত্র চালু করতে এবং নেপালকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসাবে সম্মতি দেওয়ার সমর্থনে সর্বদলীয় এক বৈঠকের ডাক দিয়েছেন। পাশাপাশি তাঁর দাবি না মানলে বৃহত আকারের বিক্ষোভের হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন।

1420347309 Bangla Hunt Bengali News

গত শুক্রবার এক জনসভায় বক্তৃতা দিতে গিয়ে কমল থাপা বলেন, ‘এটা প্রথমে আমাদের বিরোধ প্রদর্শন হলেও, বর্তমান সময়ে এই বিষয়ে সাধারণ মানুষেরাও এগিয়ে এসেছে। এই বিষয়কে প্রাধান্য দিয়ে সকল রাজনৈতিক দলের একজোট হয়ে বৈঠকে অংশগ্রহণ করা উচিত। সংসদ ভেঙ্গে দেওয়ার বিষয়ে অন্যান্য সকল রাজনৈতিক দলগুলো তলিয়ে ভাবছে না। তারা বুঝতে পারছে না, এর ফলে দেশ কতটা অন্ধকারের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে’।

কমল থাপা আরও বলেন, ‘বর্তমান সময়ে ভারতের এবং চীনের প্রতিনিধিরা এখানে এসে আমাদের সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করছেন। কিন্তু আমাদের কি করা উচিত, সে বিষয়ে আমরা অন্যদের কথা কেন শুনব? নেপালকে পুনরায় হিন্দু রাষ্ট্রে পরিণত করতে আমি এবং আমার সমর্থকরা মারতে এবং মরতেও রাজী’।

Back to top button