fbpx
আবহাওয়াটাইমলাইন

বাংলাকে গ্রাস করছে কালো মেঘ, ঠিক এই জেলায় ল্যান্ড করবে আমফান সাইক্লোন

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ আবহাওয়ার (Weather) পরিবর্তন ঘটিয়ে রাজ্যের কাছাকাছি আসতে শুরু করে দিয়েছে ঘূর্ণিঝড় আমফান (super cyclone amphan)। বঙ্গোপসাগর থেকে প্রবল শক্তি সঞ্চয় করে ধেয়ে আসছে উপকূলের দিকে। পশ্চিমবঙ্গের দীঘা থেকে বাংলাদেশের হাতিয়া দ্বীপ, এই পর্যন্তই এই যাত্রা স্থল। ঘন্টায় ১৯০ কিমি বা তার বেশি বেগে ধেয়ে এসে দুই ২৪ পরগণা, পূর্ব মেদিনীপুর, কলকাতা, হাওড়া, হুগলি ও পশ্চিম মেদিনীপুর- এই সাত জেলায় আছড়ে পড়তে পারে বলে জানাছে আবহাওয়া অফিস (Weather office)। তবে ইতিমধ্যেই ওড়িশা উপকূলে প্রবেশ করছে ঘূর্ণিঝড় আমফান। আশঙ্কা করা হচ্ছে দুপুরের মধ্যেই পৌঁছে যাবে সুন্দরবন অঞ্চলে।

ধেয়ে আসছে আমফান
দুই ২৪ পরগনা, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ-সহ গঙ্গার তীরবর্তী জেলাগুলিতে আমফানের প্রভাব স্বরূপ ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে। পাশাপাশি উপকূলবর্তী এলাকায় রয়েছে প্রবল জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা। সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস ৩ থেকে ৪ মিটার পর্যন্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের উপকূলবর্তী এলাকায় এবং ৪ থেকে ৫ মিটার পর্যন্ত হতে পারে দুই ২৪ পরগণায়। এই ঝড়ের সঙ্গে সঙ্গী হবে প্রবল বৃষ্টি।

গৃহীত সতর্কতা
আমফানের বিষয়কে কেন্দ্র করে সোমবার কলকাতা পুরসভায় এক জরুরী বৈঠকের আয়জন করা হয়। ২৪ ঘণ্টার জন্য চালু করা হয় কন্ট্রোল রুমও। পাম্পিং স্টেশনগুলোতেও আগাম সতর্কতা জারী করা হয়েছে। এমনকি কলকাতারা বহু বিপদ্দজঙ্ক বাড়ি থেকে বাসিন্দাদের সরে আসার জন্যও বলা হয়েছে।

ঝড়ের গতিবেগ বেশি থাকার কারণে, পুরনো বাড়িও ভেঙ্গে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। নবান্নের তরফ থেকে খোলা হয়েছে ২৪ ঘণ্টার হেল্প লাইন নম্বরও। এই ঝড়ের ভয়াবহতা ঠিক কতটা তা এখনই সঠিকভাবে জানাতে পারছে না হাওয়া অফিস। সেই সঙ্গে সঙ্গী হবে প্রবল ঝড় বৃষ্টি।

শহরের তাপমাত্রা
গতকাল কলকাতা (Kolkata) শহরের সকালে তাপমাত্রা ছিল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩১ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে। ঝড়ের আগমনে বেশ কিছুটা কমেছে শহরের তাপমাত্রা। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে।
আমফানের আগমনের কারণে প্রকৃতি সকাল থেকেই তৈরি হচ্ছে। ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে নিম্নচাপ। বেলা বাড়ার সাথে সাথে প্রবল ঝড় বৃষ্টি হওয়ার আভাষ দিচ্ছে হাওয়া অফিস।

আমফানের নজরদারী
প্রায় ২১ বছর পর প্রবল শক্তি সঞ্চয় করে ধেয়ে আসছে আমফান। বুধবার দুপুর থেকে সন্ধ্যের মধ্যে রাজ্যে ঢুকবে বলে আশঙ্কা করছেন আবহাওয়া বিদরা। এই ঝড়ের জেরের সমুদ্র উপকূলবর্তী অঞ্চলে জারী করা হয়েছে সতর্কতা। সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে মানুষজনকে। প্রথমে সমুদ্রতীরবর্তী অঞ্চল তছনছ করে শহরের দিকে প্রবেশ করবে বলে মনে করা হচ্ছে। আমফানের কারণে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী অনুরোধ করছেন, আজকের দিনে কেউ যেন বাড়ি থেকে না বেরোয়।

Back to top button
Close
Close