টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গআবহাওয়া

আগামী কয়েকদিনে বড়সড় পরিবর্তন আবহাওয়ায়! উত্তরে দুর্যোগ, দক্ষিণে জারি অতিবৃষ্টির সতর্কতা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ গত সপ্তাহের শেষে দক্ষিণবঙ্গে বর্ষা প্রবেশ করলেও এখনো পর্যন্ত এর প্রভাবে ভারী বৃষ্টিপাতের সাক্ষী থাকেনি মানুষ। দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত এবং কোথাও কোথাও ঝোড়ো হাওয়ার সাথে সামান্য ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছে। তবে বর্ষার প্রভাবে গুমোট ভাব অনেকটাই কেটে গিয়েছে এবং আগামী কয়েকদিন তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে বলেই জানিয়েছে হাওয়া অফিস। অবশ্য এরমাঝেই আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে যে, জুলাই মাস থেকে বর্ষার প্রভাব বাড়বে এবং জুলাই আগস্ট ও সেপ্টেম্বরে দক্ষিণবঙ্গে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সর্তকতা জারি করা হয়েছে। অপরদিকে, উত্তরবঙ্গে জুন মাসের প্রথম থেকে প্রবল বৃষ্টিপাতের সাক্ষী থাকে মানুষ। বর্তমানে আবহাওয়ার সামান্য উন্নতি হলেও আগামী চার থেকে পাঁচ দিনে দুর্যোগ আরো বাড়তে চলেছে বলে মত হাওয়া অফিসের।

আবহাওয়ার খবর
সর্বোচ্চ তাপমাত্রা : ৩০.৯° সেলসিয়াস
সর্বনিম্ন তাপমাত্রা : ২৬.৯° সেলসিয়াস
আর্দ্রতা : ৯০%
বাতাস :  ১৫ কিমি/ঘন্টা
মেঘে ঢাকা : ৭০%

আজকের আবহাওয়া
বিগত বেশ কয়েক দিনের মতোই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিতে ভিজতে চলেছে শহর কলকাতা। তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকার পাশাপাশি আদ্রতাজনিত অস্বস্তি অনেকটাই কম হবে। আগামী চার থেকে পাঁচ দিন একই অবস্থা জারি থাকবে বলে জানা গিয়েছে। অবশ্য জুলাই মাসের গোড়া থেকে আবহাওয়ায় আমূল পরিবর্তন ঘটতে চলেছে। তখন বর্ষার প্রভাব হবে অধিক। আজ কলকাতা সহ হাওড়া, হুগলি, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনা, পুরুলিয়া এবং বর্ধমানের একাধিক প্রান্তে ঝোড়ো হাওয়ার সাথে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হবে। আজ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩১ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসের আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ ৯০%।

উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গের আবহাওয়া
গত সপ্তাহে বর্ষা প্রবেশ করার পর থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সাক্ষী থেকেছে দক্ষিণের একাধিক জেলা। তবে জুলাই মাসের প্রথম থেকে আবহাওয়া বড়োসড়ো পরিবর্তন আসতে চলেছে। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের মতে, আগামী মাসের প্রথম থেকে বর্ষার প্রভাব হবে মারাত্মক ল। এমনকি আগামী তিন মাসে উত্তরবঙ্গের পাশাপাশি দক্ষিণেও অতিবৃষ্টির সম্ভাবনা জারি করা হয়েছে। নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত বঙ্গে বর্ষার অস্তিত্ব থাকবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

অপরদিকে, জুন মাসের গোড়া থেকেই প্রবল বৃষ্টিতে ভেসে চলেছে উত্তরবঙ্গ। বর্তমানে পরিস্থিতির সামান্য উন্নতি হলেও আগামী কয়েকদিনের মধ্যে দার্জিলিং, কোচবিহার এবং জলপাইগুড়ি সহ অন্যান্য একাধিক প্রান্তে ভারী দুর্যোগ হতে চলেছে বলে সর্তকতা জারি করা হয়েছে।

আগামীকালের আবহাওয়া 
আগামী কয়েকদিনে কলকাতা সহ অন্যান্য জেলাগুলিতে বৃষ্টিপাতের প্রভাবে গরমের প্রভাব কমবে। চার পাঁচ দিন ধরে একই রকমের আবহাওয়া জারি থাকবে বলে জানা গিয়েছে। অবশ্য এর পরেই বর্ষার প্রভাবে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

Related Articles

Back to top button