টাইমলাইনভারতখেলাআন্তর্জাতিকক্রিকেট

বিশ্ব কাপের পর নিজেই সরবেন রবি শাস্ত্রী, কোচ হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রাহুল দ্রাবিড় সহ এই তিন খেলোয়াড়

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষ হলেই ভারতীয় দলের প্রধান কোচের পদ থেকে অবসর নিতে চলেছেন রবি শাস্ত্রী। একদিকে যেমন তার কার্যকালের মেয়াদ শেষ হতে চলেছে, তেমনি অন্যদিকে শাস্ত্রীও জানিয়েছেন, তিনি আর কোচ হিসেবে মেয়াদ বাড়াতে চান না। যার ফলে নতুন কোচ কে হবে তাই নিয়ে এখন বড় জল্পনা দেখা দিয়েছে। আসুন দেখে নেওয়া যাক কোচ পদের দাবিদার হিসেবে রয়েছে কোন কোন নাম।

রাহুল দ্রাবিড়ঃ

বিসিসিআই প্রধান সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় যদিও চান, প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড় কোচের দায়িত্ব সামলান কিন্তু ইতিমধ্যেই এনসিএ প্রধান পদের জন্য ফের একবার আবেদন জানিয়েছেন দ্রাবিড়। যার ফলে তিনি দৌড় থেকে সরে গেলেন বলেই মনে করা হচ্ছে। যদিও সৌরভ জানিয়েছেন, তিনি এখনও রাহুলকেই চান। আর তাই তার সঙ্গে কথা বলবেন তিনি। একথা ঠিক যে রাহুল দ্রাবিড় যদি রাজি হন, তাহলে অন্য নামের কোন প্রসঙ্গ আসে না। তবে তিনি যদি এনসিএ প্রধান হিসেবেই থাকতে চান সে ক্ষেত্রে উঠে আসতে পারে আরও কয়েকটি নাম।

বীরেন্দ্র সেওয়াগঃ

সৌরভ গাঙ্গুলীর সাথে বীরেন্দ্র সেওয়াগের সম্পর্কের কথা সকলেই জানেন। এছাড়া দিল্লি থেকে আসা ভারত অধিনায়ক কোহলিও যথেষ্ট সম্মান করেন বীরুকে। তাই কোচ হওয়ার দৌড়ে তার নাম অবশ্যই সামনের দিকে রয়েছে। কিন্তু এক্ষেত্রে কোচ হিসেবে আবেদন করার পরেও আগেরবার রবি শাস্ত্রীর কাছে পিছিয়ে পড়েছিলেন সেওয়াগ। কার্যত কোহলির পছন্দ মতো শাস্ত্রীকেই কোচ করা হয়। এ ঘটনার পর বীরু একাধিক ইন্টারভিউতে জানিয়েছেন ভারতীয় দলের কোচ পদের জন্য আবেদন করবেন না তিনি। এখন আগামী দিনে অবশ্য কি হয় সেদিকে নজর থাকবে সকলের। জানিয়ে রাখি এরআগেও আইপিএলে কোচিংয়ের অভিজ্ঞতা রয়েছে সেওয়াগের।

মাইক হেসনঃ

রবি শাস্ত্রী যখন ভারতীয় দলের কোচ হিসেবে নির্বাচিত হন, তখন তার বিরুদ্ধে সবথেকে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছিলেন মাইক হেসন। হেসনের কোচিংয়ের অধীনে, নিউজিল্যান্ড দল ২০১৫ সালে বিশ্বকাপের ফাইনালে পৌঁছেছিল। শুধু তাই নয় তিনি বর্তমানে আইপিএলে বিরাটের দল রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরেরও ক্রিকেট অপারেশনের পরিচালক হেসন। সেই কারণে অনেকেই দৌড়ে এগিয়ে রাখছেন তাকে।

টম মুডিঃ

শাস্ত্রী যখন ভারতীয় দলের কোচ নিযুক্ত হন একইভাবে দাবি পেশ করেছিলেন টম মুডিও। যদিও কার্যত কোহলির দাবি মেনে শাস্ত্রীকে কোচ করায় তার আবেদন গ্রাহ্য হয়নি তবে এবার ফের একবার বড় প্রতিযোগিতা হতে পারে এবং হেসনের মধ্যে। কারন হেসনের মতো আইপিএলে দীর্ঘদিন কোচিং করার অভিজ্ঞতা রয়েছে মুডিরও।

 

Related Articles

Back to top button