টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

বেতন নিয়ে মালিকের সাথে বচসার জের! রেস্তরাঁর রান্নাঘরে আরশোলা ছেড়ে দিলেন কর্মী

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বেতন নিয়ে মালিকের সাথে বাকবিতণ্ডার জেরে এবার এক চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটিয়ে ফেললেন রেস্তরাঁর এক কর্মী। এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, নির্ধারিত কাজের দিনের বাইরেও একটি ছুটির দিনে কাজ করেন ওই কর্মী। এমতাবস্থায়, তিনি ভেবেছিলেন সেজন্য হয়তো বাড়তি উপার্জন হবে তাঁর। কিন্তু, তাঁর সেই ভাবনা ছিল ভুল। এমনকি, এই বিষয়টি জানানোর পর চাকরি যাওয়ার হুমকিও পান ওই কর্মী। আর তারপরেই রেগে গিয়ে এক নজিরবিহীন কান্ড ঘটিয়ে ফেলেন তিনি।

মূলত, রাগের বশবর্তী হয়ে সংশ্লিষ্ট রেস্তোঁরা কর্তৃপক্ষের উপর প্রতিশোধ নিতে ওই রেস্তরাঁর রান্নাঘরে প্রায় কুড়িটি আরশোলা ছেড়ে দেন তিনি। হ্যাঁ, শুনে অদ্ভুত মনে হলেও এবার এই ঘটনার প্রসঙ্গই সামনে এসেছে। পাশাপাশি, ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাজ্যের লিঙ্কনে। জানা গিয়েছে, টনি উইলিয়ামস নামের ওই কর্মী রেস্তোরাঁটিতে শেফের কাজ করতেন।

এদিকে, শেষপর্যন্ত পুরো বিষয়টি জানতে পেরে যায় ওই রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ। সিসিটিভিতেই টনির এহেন কর্মকাণ্ডের বিষয়টি সামনে আসে। যার ফলে ওই আরশোলাগুলি রেস্তরাঁর কর্মী বা অতিথিদের কোনো ক্ষতি করতে পারেনি। যদিও, এই ঘটনায় যথেষ্ট বেগ পেতে হয় তাঁদের। জানা গিয়েছে, প্রায় দু’লক্ষ টাকা খরচের মাধ্যমে পেস্ট কন্ট্রোলের কাজ করাতে হয় সেখানে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, রেস্তরাঁ কর্তৃপক্ষ অবশ্য তাদের সিদ্ধান্তকে পুনর্বিবেচনা করে টনিকে চাকরি থেকে ছাঁটাই করার বদলে তাঁকে সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করেছে। যদিও, পুরো ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে টনির ১৭ মাসের কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় আদালত।

american cockroach

মূলত, অতিরিক্ত কাজের পরিপ্রেক্ষিতে বেতন না মেলায় রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষের সাথে তাঁর বচসা হয়। আর তারপরেই এহেন কাজ করে বসেন টনি উইলিয়ামস। জানা গিয়েছে, তিনি যে আরশোলাগুলি ওই রেস্তোরাঁয় ছেড়েছিলেন সেগুলি সাধারণ আরশোলার তুলনায় কিছুটা ভিন্ন ছিল। মূলত, চিড়িয়াখানায় রাখা সাপ এবং ট্যারান্টুলা মাকড়সাদের খাওয়ানোর জন্য এই বিশেষ আরশোলা ব্যবহার করা হয় বলে জানা গিয়েছে।

Related Articles