টাইমলাইনভারতরাজনীতি

বিরোধী শিবিরকে ঠেকাতে মেগা প্ল্যান যোগীর, বিধানসভা নির্বাচনের আগে কৃষকদের বড় উপহার

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বাংলার পরে এবার সকলেরই লক্ষ্য উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনের দিকে। বিশেষজ্ঞদের অনেকেই মনে করেন দিল্লি লোকসভার দরজা তৈরি হয় উত্তরপ্রদেশের মধ্য দিয়ে। তাই শাসক দল বিজেপি হোক কিম্বা বিরোধী অখিলেশ, মায়াবতী, কংগ্রেস শিবির সকলের কাছেই এই নির্বাচন ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। এবার এই নির্বাচনের কথা মাথায় রেখেই বড় বাজি ধরল যোগী আদিত্যনাথের বিজেপি।

এই মুহূর্তে বিশেষত পশ্চিমী উত্তরপ্রদেশের কৃষকরা বিজেপির ওপর যথেষ্ট মনোক্ষুন্ন হয়ে রয়েছে। নতুন কৃষি বিলের বিরুদ্ধে আন্দোলন চালাচ্ছে তারা, তার উপর লখিমপুরের ঘটনা আরও বেশি দেওয়ালে পিঠ ঠেকিয়ে দিয়েছে বিজেপির। আর তাই এবার কৃষকদের মন জয় করতে বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধানে উদ্যত হল যোগী সরকার। উত্তরপ্রদেশের কৃষকরা এই মুহূর্তে যে তিন চারটি বড় সমস্যার মধ্য দিয়ে চলেছেন, তার মধ্যে একটি হলো কৃষক মান্ডি থেকে এমএসপি সহ ফসলের দাম পাওয়া, রাস্তায় চড়ে বেড়ানো পশুদের ক্ষেত নষ্ট করা এবং বিদ্যুৎ বিল সংক্রান্ত সমস্যা।

এবার এই বিদ্যুৎ বিল সংক্রান্ত সমস্যার সমাধানে উদ্যত হল বিজেপি। বুধবার যোগী সরকার তরফে বিদ্যুৎ খেলাপিদের জন্য ওয়ান টাইম সেটেলমেন্ট স্কিম (ওটিএস) ঘোষণা করা হয়েছে। যেখানে সারচার্জে ১০০% ছাড় দেওয়া হবে। জ্বালানিমন্ত্রী শ্রীকান্ত শর্মা জানিয়েছেন, যে এই স্কিম ২ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ ব্যবহারকারী কৃষক এবং ভোক্তাদের জন্য খুবই উপকারী হতে চলেছে। যারা বিল পরিশোধ করতে পারেননি তাদেরও ছটি কিস্তিতে বিল পরিশোধ করার সুযোগ দেওয়া হবে। শুধু তাই নয়, যাদের বিদ্যুৎ পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে কিম্বা আইনে মামলা চলছে তারাও এই পরিষেবার অন্তর্ভুক্ত হতে পারবেন।

এর বাইরে, ২ কিলোওয়াট থেকে ৫ কিলোওয়াট পর্যন্ত বিদ্যুৎ খরচ করেন যারা, তারা সারচার্জের উপরও ৫০ শতাংশ ছাড় পাবে। লকডাউনের পর অনেকেই আর্থিক সংকটের মুখোমুখি হয়েছেন। তার ওপর বিদ্যুতের প্রচুর বিল দিতে গিয়ে সমস্যার মুখে পড়ছেন ছোট ব্যবসায়ী থেকে কৃষক সকলেই। আর সেই সূত্র ধরেই নতুন স্কিমের ব্যবস্থা করল বিজেপি। এর আগেই মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছিলেন যে বিদ্যুৎ প্রদানের ক্ষেত্রে কৃষকদের বিদ্যুৎ সংযোগ কাটা যাবে না।

বিদ্যুৎ বিল সংক্রান্ত সমস্যা কতখানি প্রবল হয়ে উঠেছে তা বোঝা গিয়েছিল কিছুদিন আগেই। যখন একটি পর্যালোচনা সভাতেও মুখ্যমন্ত্রীর সামনে এই সমস্যার কথা তুলে ধরেছিলেন বেশকিছু বিধায়ক এবং সংসদ। আর তখন থেকেই এই সমস্যার সমাধান করার জন্য তৎপর শাসক দল। জানা গিয়েছে সম্পূর্ণ অনলাইনে এর জন্য আবেদন করা যাবে। ইউপি এনার্জির ওয়েবসাইট www.upenergy.in থেকেই এই সুবিধা পাবেন গ্রাহকরা। এখন আদিত্যনাথ স্ট্র্যাটেজি আগামী নির্বাচনে মাস্টার স্ট্রোক হয়ে উঠতে পারে কিনা সে দিকেই তাকিয়ে থাকবে সকলের।

 

Related Articles

Back to top button