টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

নিজের শরীরের রক্ত দিয়ে আঁকলেন মুখ্যমন্ত্রীর ছবি, দুর্গাপুরের সুরজিতের কাণ্ডে হতবাক সকলে

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ছোট থেকেই ভালো ছবি আঁকতেন তিনি। পরে ছবি আঁকাকেই নিজের নেশা ও পেশা হিসাবে গ্রহণ করেন। উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করে ছোটছেলেমেয়েদের ছবি আঁকা শেখান। বয়স খুব বেশি হলে ২১ বছর। এই যুবকই এবার অবাক করে দিলেন সকলকে। নিজের শরীরের রক্ত দিয়েই তিনি এঁকে ফেলেছেন প্রিয় মানুষটার ছবি। ওই যুবকের প্রিয় মানুষ অন্য কেউ নন, স্বয়ং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

যুবকের নাম সুরজিৎ রায়। তিনি দুর্গাপুরের আমরাই গ্রামের বাসিন্দা। ছোটোবেলা থেকেই ছবি আঁকতে ভালোবাসতেন। তার সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অন্ধ ভক্ত। খুব ছোট বয়স থেকেই তাঁর মনে একটি ইচ্ছে ছিল। সুযোগ পেলে কোনও একদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিজের আঁকা একটি বিশেষ ছবি তুলে দেবেন।

সেই ইচ্ছে পূরণ করতে গিয়েই নিজের রক্ত দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি এঁকে ফেললেন সুরজিৎ। সেই ছবি দেখে তাক লেগে গেছে সকলের। মুখ্যমন্ত্রী বর্তমানে জেলা সফরে দুর্গাপুর গিয়েছেন। জানা যাচ্ছে, বুধবার মমতার সভায় নিজের রক্ত দিয়ে আঁকা ওই ছবি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে তুলে দিতে চান সুরজিৎ। সরকারি সূত্রে খবর, প্রশাসনিক বৈঠক করতে বুধবার দুর্গাপুরে থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী। সুরজিৎ জানান এই ছবি আঁকার জন্য কেউ তাঁকে বাধা দেয়নি। উল্টে, পরিবারের তরফ থেকে উৎসাহই পেয়েছেন।

কীভাবে এল সুরজিতের এই রক্ত দিয়ে ছবি আঁকার চিন্তা?

সুরজিৎ জানান, কয়েকদিন আগে অসুস্থ হয়েছিলেন তিনি। ভর্তি হতে হয় হাসপাতালেও। সেখানেই তাঁর রক্ত পরীক্ষা করার জন্য স্বাস্থকর্মীরা শরীর থেকে রক্ত সংগ্রহ করেছিলেন। সেই রক্তই চেয়ে নেন সুরজিৎ। তা দিয়েই ফুটিয়ে তোলেন মুখ্যমন্ত্রীর ছবি। বুধবার সুরজিতের নিজের শরীরের রক্ত দিয়ে আঁকা এই ছবি দেখে মুখ্যমন্ত্রী কী অনুভূতি প্রকাশ করেন সেটা দেখতেই উদগ্রীব সকলে।

Related Articles