টাইমলাইনভারত

মুখে সিগারেট নিয়ে মন্দিরে ঢুকে নন্দীর মূর্তিতে লাথি মারল যুবক, ভাইরাল হল ভিডিও

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ টিকটক (Tiktok) এই চীনা অ্যাপে বহু ভাইরাল ভিডিও (Viral video) দেখা গেছে অনেক সময়। ভারতে এই অ্যাপ নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন দিক থেকে আসছে নানান প্রতিক্রিয়া। বহুল পরিমাণে জনপ্রিয় এই অ্যাপের নিষেধাজ্ঞায় খুশি দেশের সিংহভাগ মানুষই। অনেকেই ভারত সরকারের গৃহীত এই সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন নিজের ভঙ্গিমায়। আবার অনেকে লক্ষ লক্ষ যুবক যুবতীয় কর্মহীন হয়ে পড়ার আশঙ্কাও প্রকাশ করেছেন।

নিষিদ্ধ টিকটক
ভারত চীন সীমা বিবাদের জেরে ভারত সরকার চীনের ৫৯ টি অ্যাপ ভারতে নিষিদ্ধ করেছেন। যার মধ্যে রয়েছে জনপ্রিয় অ্যাপ টিকটক। এই অ্যাপের মাধ্যমে তরুণ তরুণীরা তাঁদের প্রতিভার প্রকাশ ঘটাত। তবে আকস্মিকভাবে এই অ্যাপ বন্ধের পরিপ্রেক্ষিতে কিছুটা হলেও তারা হতাশা গ্রস্থ হয়ে পড়েছে। এমনকি মঙ্গলবার ভারতের গুগল প্লে স্টোর থেকে সরিয়েও দেওয়া হয়েছে টিকটক।

এরই মাঝে গুজরাতের শাপর-ভেরোভালের সর্বোদয় হাউজিং সোসাইটির এক শিব মন্দিরে একটি ভিডিও সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে। যা দেখে নিন্দার ঝড় উঠেছে স্যোশাল মিডিয়ায়। টিকটকের জেরে এক যুবক আঘাত করল হিন্দুদের ধর্মীয় অনুভূতিতে। দিল কো দুখিয়ে ইশক ইশক গানের সাথে মন্দিরের অবমাননার একটি দৃশ্যের ভিডিও করা হয়।

কি ছিল ভিডিওর বিষয়বস্তু?
ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে। এক যুবক মাথায় টুপি, চোখে চশমা এবং মুখে সিগারেট নিয়ে জুতো পড়েই মন্দিরে প্রবেশ করেছে। মন্দিরে ঢুকেই নন্দীর মূর্তিটি ভেঙ্গে ফেলেন। তারপর গর্ভগৃহের দরজায় অবলীলায় লাথি মারতে শুরু করেন। তাঁর এই কুকর্মের ভিডিও করে তারই এক সঙ্গী। পরবর্তীতে এই ভিডিও টিকটকে @jayu ___ 57 নামে একটি আইডি থেকে আপলোড করার সাথে সাথেই ভাইরাল হয়ে যায়। উত্তেজিত হয়ে পড়ে এলাকাবাসী।

গ্রেপ্তার অভিযুক্তরা
জেলা এসপি বলরাম মীনাও কঠোর জানিয়েছেন, অভিযুক্তরা হলেন জীবন চুদাসামা ও দীনেশ মাহিদা। তাঁদের পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। ধৃতদের করোনা টেস্ট করতে দেওয়া হয়েছে, রিপোর্ট আসার পর তাঁদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Back to top button