টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গবিধানসভা নির্বাচন

ভোটের পর সংযুক্ত মোর্চাতে সামিল হচ্ছেন মমতা? অধীর চৌধুরীর মন্তব্যে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতিতে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রাজ্যে তৃতীয় দফার নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। চতুর্থ দফার নির্বাচনী প্রচারে জুটেছেন শাসক থেকে বিরোধী সমস্ত শিবির। আর এরই মধ্যে অধীর চৌধুরীর (Adhir Chowdhury) বয়ান নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে তোলপাড় পড়ে গিয়েছে। নির্বাচনের পর তৃণমূলকে (All India Trinamool Congress) সমর্থনের সম্ভাবনা পুরোপুরি খারিজ করলেন না অধীরবাবু। উপরন্তু তিনি বললেন, রাজনীতি হল সম্ভাব্যতার শিল্প।

বুধবার কলকাতার প্রেস ক্লাবে একটি সাংবাদিক বৈঠক করেন অধীর চৌধুরী। আর সেখানে ওনাকে প্রশ্ন করা হয় যে, নির্বাচনের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কি সমর্থন করবে কংগ্রেস? সাংবাদিকদের প্রশ্নের সোজাসাপ্টা উত্তর দেননি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। এমনকি তিনি সমর্থনের সম্ভাবনাও সম্পূর্ণ উড়িয়ে দেন নি।

Adhir Chowdhury made a special petition to Prime Minister Modi to condemn the attack on Hindus in Bangladesh

অধীর চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, ‘এখন কাল্পনিক প্রশ্নের সময় না। সংযুক্ত মোর্চা নবান্ন দখল করার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে। আমাদের এই জোটকে কে সমর্থন করবে, কে করবে না সেটা তাঁদের ব্যক্তিগত ব্যাপার। আর তৃণমূল হেরে গেলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোথায় যাবেন, সেটাও আমাদের জানা নেই। তবে এমনও হতে পারে যে, সংযুক্ত মোর্চার নবান্ন দখলের লড়াই থেকে নিজেকে বাঁচানোর জন্য তিনি নিজেই আমাদের সঙ্গী হয়ে গেলেন। সংযুক্ত মোর্চার সঙ্গে যুক্ত হওয়ার আবেদন করলেন।”

তৃতীয় দফার নির্বাচনের আগেই বিজেপি বিরোধী সমস্ত দলগুলোকে চিঠি লিখে এক হওয়ার আবেদন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই সময় তিনি কংগ্রেসের সভাপতি তথা সাংসদ সোনিয়া গান্ধীকেও চিঠি লিখে বিজেপির বিরুদ্ধে এক হওয়ার আহ্বান জানান। আর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই আবেদনকে কংগ্রেসের নৈতিক জয় হিসেবে দেখছেন অধীরবাবু।

বাংলা/west bengal

অধীর চৌধুরী বলেন, ‘যেই তৃণমূল নেত্রী বলতেন কংগ্রেসকে মিউজিয়ামে পাঠিয়ে দিয়েছি। আমি একসময় কংগ্রেসে ছিলাম সেটা ভাবতেও লজ্জা লাগে। আর এখন সেই মুখ্যমন্ত্রীই সোনিয়া গান্ধীকে চিঠি লিখে বিজেপির বিরুদ্ধে এক হওয়ার আবেদন করছেন। এটাই আমাদের নৈতিক জয়।”

Back to top button