টাইমলাইনভাইরাল

আঘাত পেয়ে একা একাই হাসপাতালে উপস্থিত হনুমান, প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটপাড়া! দেখুন ভিডিও

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ বর্তমান যুগ সামাজিক মাধ্যমের যুগ। স্মার্ট ফোনে ধারন যে কোনো ছবি বা ভিডিও সারা বিশ্বের সাথে ভাগ করে নেন নেট পাড়ার বাসিন্দারা। আর সেই ছবি বা ভিডিও এর জেরেই রাতারাতি তারকা বা খলনায়ক বনে যায় যে কেউ। ভাইরাল ছবি ভিডিওতে শুধু মানুষ নয় রাতারাতি ভাইরাল (viral) হয়ে যায় বন্যপ্রাণীরাও।

হনুমান জাতীয় প্রানীদের বুদ্ধি যথেষ্ট এ নিয়ে সন্দেহ নেই। কিন্তু আহত হয়ে নিজেই হাসপাতালে ডাক্তার দেখাতে ছুটবে এতখানি সামাজিক বুদ্ধি হনুমানের থাকতে পারে তা ভাবনার অতীত। কিন্তু এমনটাই করেছে এক হনুমান। লম্ফঝম্ফ করতে গিয়ে চোট পাওয়ার পর সে সোজা চলে যায় হাসপাতালের বর্হিবিভাগে। সেই ভিডিওটি এই মুহুর্তে নেটদুনিয়ায় ভীষণই ভাইরাল।

ভারতের অন্যতম পুরোনো সাহিত্যকর্ম রামায়ণে হনুমান জাতীয় প্রানীদের বুদ্ধির গল্প প্রচলিত। তবে নতুন করে এই ভিডিওটি নেটদুনিয়ায় আলোড়ন তুলেছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সেই হাসপাতালের কর্মীরা পরম মমতায় হনুমানটির চিকিৎসা করছে। সেও বাধ্য রোগীর মত ব্যাবহার করছে। হনুমানের বুদ্ধির পাশাপাশি কর্মীদের কাজকেও প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন নেটিজেনরা।

এর আগে সামাজিক মাধ্যম টুইটারে এমনই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। ভিডিওতে একটি বানরকে দেখা গেছে একটি বাড়ির ছাদে বসে মনের সুখে ঘুড়ি ওড়াতে। যদিও দূর থেকে দেখে আপনি বুঝতে পারবেন না, সেটা বানর না মানুষ। তার ঘুড়ি ওড়ানোর কায়দা এতটাই দূরন্ত যে, মানুষ বলে ভুল হতেই পারে। মজার ব্যাপার হল কিছুক্ষণ পর সে নিজেই ঘুড়িটিকে নামিয়ে হাতে নিয়ে বসে থাকে।

 

Back to top button