পাড়ার কালীপুজোয় এ কোন অরিজিৎ! খালি পা-সবুজ পাঞ্জাবিতে গায়ককে দেখে অবাক ভক্তরা

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী অরিজিৎ সিং (Arijit Singh) যে কতটা মাটির মানুষ তা আর নতুন করে বলার দরকার নেই। কোটি টাকার মালিক হয়েও তার মন পড়ে থাকে জিয়াগঞ্জেই । তার সাদামাটা জীবন থেকে শুরু করে দিলদরিয়া স্বভাব, সবকিছুই মানুষের নখদর্পণে। কনসার্টের সূত্রে, অস্ট্রেলিয়া থেকে আমেরিকা ঘুরে বেড়ালেও, শিকড়ের টানে ফিরে আসেন জিয়াগঞ্জের মাটিতেই।

এমনকি তার মুম্বাইয়ের বিলাসবহুল বাংলোও এমনিই পড়ে রয়েছে। স্ত্রী সন্তান নিয়ে তিনি রয়েছেন মুর্শিদাবাদেই। দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই গায়কের আচরণ বারংবার মু্গ্ধ করে অনুরাগীদের। পাড়ার দোকান থেকে জিনিস কেনা থেকে শুরু করে দুর্গাপূজায় পাড়ার মন্ডপ পরিদর্শন করা সবেতেই রয়েছেন তিনি। কালীপুজোর দিনও সেই নিয়মের অন্যথা হলনা।

এইদিন পাড়ার কালী মন্দিরে (Kali Mandir) উপস্থিত ছিলেন গায়ক। খালি পা, পরনে সবুজ পাঞ্জাবি আর সাদা পাজামা। দুহাত জোড় করে মায়ের সামনে প্রার্থনা সারলেন অরিজিৎ। পাড়ার মহিলাদের ভিড়ে তিনি যেন একেবারেই সাদামাটা একটা ছেলে। তাদের চোখে মুখের চাহনিতেও কোথাও বোঝা গেলনা যে, অরিজিৎ কোনও সেলিব্রেটি মানুষ বলে।

আরও পড়ুন : স্বাধীনতার পর প্রথম জ্বলল দীপাবলির প্রদীপ! ৭৫ বছর পর আলোর উৎসবে মাতল কাশ্মীরের এই মন্দির

আসলে এই প্রথম নয়, এর আগেও একাধিকবার পাড়ার কাজে হাত লাগিয়েছেন ‘কেশরিয়া’ (Kesariya) গায়ক। তার দিলদরিয়া স্বভাবের প্রমাণ মিলেছে অসংখ্যবার। তাই জিয়াগঞ্জের মানুষের কাছেও এই দৃশ্য নতুন কিছু নয়। সঙ্গীত জগতের বেতাজ বাদশা যেন তাদের ঘরের লোক। আর এই কারণেই বোধহয় তিনি সাধারণের মাঝেও অসাধারণ।

আরও পড়ুন : এবার নিশানায় জইশ প্রধান আজহারের ঘনিষ্ঠ! জঙ্গি নেতার উপর গুলি বর্ষণ পাক মাটিতে

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত রবিবারই মুক্তি পেয়েছে সলমন খান অভিনীত বহুল প্রতিক্ষিত ছবি ‘টাইগার থ্রী’। এবং এই ছবিতে প্রথমবারের মত ভাইজানের হয়ে গান গেয়েছেন অরিজিৎ। ভক্তদের জন্য এটা সত্যিই কোনও কম পাওয়া নয়। কারণ এর আগে, এক ভুল বোঝাবুঝির জন্য দীর্ঘদিন অরিজিৎ-র থেকে মুখ ফিরিয়ে ছিলেন সলমন। যদিও তাতে গায়কের কেরিয়ারে খুব একটা প্রভাব পড়েনি। কারণ প্রতিভাকে যতই দাবিয়ে রাখার চেষ্টা করা হয়, সে ততই উপরে উঠে আসে।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর