ভোটের পর্ব মিটতে না মিটতেই লিটারে বাড়ল ৩ টাকা, পেট্রোল-ডিজেলের নতুন দামে মাথায় হাত জনগণের

বাংলা হান্ট ডেস্ক: ইতিমধ্যেই দেশে (India) সম্পন্ন হয়েছে লোকসভা নির্বাচন (Lok Sabha Election)। যেখানে NDA সরকার গঠনের মাধ্যমে তৃতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। যদিও, লোকসভা ভোটের পর্ব মিটতে না মিটতেই এবার এক লাফে বৃদ্ধি পেল পেট্রোল-ডিজেলের (Petrol-Diesel Price) দাম। যার ফলে কার্যত মাথায় হাত পড়ল সাধারণ মানুষের। এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, দেশের একটি রাজ্যে ইতিমধ্যেই পেট্রোলের দাম প্রতি লিটারে ৩ টাকা এবং ডিজেলের দাম ৩.০৫ টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

মূলত, কর্ণাটক সরকার জ্বালানির দামে এহেন বৃদ্ধি ঘটিয়েছে। শুধু তাই নয়, পেট্রোলের সেলস ট্যাক্স ২৫.৯২ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে এখন তা করা হয়েছে ২৯.৮৪ শতাংশে। অপরদিকে, ডিজেলের ক্ষেত্রে সেলস ট্যাক্সের পরিমাণ ১৪.৩ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ১৮.৪ শতাংশ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, রাজস্ব বাড়ানোর লক্ষ্যেই কর্ণাটক সরকার এহেন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বলে জানা গিয়েছে।

   

As soon as the election were over, the price of fuel increased by rupees 3 per liter.

এমতাবস্থায়, পেট্রোলিয়াম ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের তরফে প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে জানা গিয়েছে, ১৫ জুন অর্থাৎ শনিবার থেকেই কার্যকর করা হবে এই বর্ধিত দাম। যার ফলে আগামীকাল সকাল থেকে কর্ণাটকের মানুষদের এই বর্ধিত দামেই পেট্রোল-ডিজেল কিনতে হবে। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, কর্ণাটক সরকারের তরফে পেট্রোল-ডিজেলের ক্ষেত্রে সেলস ট্যাক্স অর্থাৎ বিক্রয় কর বৃদ্ধির জন্য জ্বালানির দাম বেড়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন: অ্যাকশনে বিজেপি, ভোট পরবর্তী হিংসার তদন্তে বাংলায় আসছে প্রতিনিধি দল! বড়সড় কিছু হওয়ার আশঙ্কা

বেঙ্গালুরুতে জ্বালানোর দাম: জ্বালানির দাম বৃদ্ধির ফলে বেঙ্গালুরুতে পেট্রোলের দাম প্রতি লিটারে ৯৯.৮৪ টাকা বেড়ে হল ১০২.৮৪ টাকা। পাশাপাশি, ডিজেলের ক্ষেত্রে এই দাম প্রতি লিটারে ৮৫.৯৩ টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ৮৮.৯৫ টাকা।

আরও পড়ুন: বেজে গেল মোদী সরকারের পতনের ঘণ্টা? বিরাট দাবি ইন্ডিয়া জোটের, শোরগোল ভারতে

এদিকে, রাজ্যের অর্থ মন্ত্রকের তরফে দেওয়া বিবৃতি অনুসারে, সেলস ট্যাক্স বাড়ানোর ফলে রাজস্ব আয়ের পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে। যদিও, প্রতি লিটার জ্বালানির ক্ষেত্রে এক ধাক্কায় এতটা দাম বৃদ্ধির ফলে পরিবহণ থেকে শুরু করে পণ্য বন্টন ব্যবসায় নেতিবাচক প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যার ফলে প্রত্যক্ষভাবে পকেটে টান পড়বে সাধারণ মানুষের।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর