অবস্থার আরও উন্নতি! এবার কথা বললেন বুদ্ধদেব, কিসে অসুবিধা? জানালেন নিজেই

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য (Buddhadeb Bhattacharya)। রবিবারই চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন গত ২৪ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে ওনার আর জ্বর আসেনি। কিছুটা উন্নতি হয়েছে। গতকালও চিকিৎসকেরা জানান, আগের থেকে এখন একটু ভাল আছেন বুদ্ধবাবু। গতকাল ভেন্টিলেশন থেকে বের করে নন ইনভেসিভ ভেন্টিলেশনে স্থানান্তরিত করা হয়। মাঝে মাঝেই তাকে বাইপ্যাপ সাপোর্ট দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা। হাসপাতাল সূত্রেই খবর, সেই সময় বাদে অন্য সময় নিজে থেকেই কথা বলছেন বুদ্ধবাবু।

জানা যাচ্ছে, শরীরে কী কী সমস্যা হচ্ছে তা নিজেই চিকিৎসক এবং ঘনিষ্ঠদের জানাচ্ছেন কমরেড। পাশাপাশি নিজে নিজেই শ্বাস-প্রশ্বাস চালাতে পারছেন। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, একটানা বহুক্ষণ বাইপ্যাপ সাপোর্ট দিয়ে রাখতে হচ্ছে না তাকে। মাঝেমাঝেই যখন তা খুলে দেওয়া হচ্ছে তখন নিজেই শ্বাস-প্রশ্বাস চালাতে পারছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

   

গতকাল দুপুরে ১৯ ঘণ্টা পর ফুসফুসের সিটি স্ক্যান রিপোর্ট দেখে ভেন্টিলেশন থেকে বার করা হয় বুদ্ধবাবুকে। বর্তমানে আগের থেকে অনেক কমেছে শ্বাসকষ্ট। অন্যদিকে, সামান্য সুস্থ হতেই আর বাইপ্যাপ সার্পোট নিতে চাইছেন না তিনি। হাসপাতাল সূত্রে খবর, চিকিৎসকদের কাছে নিজের অনিচ্ছার কথা জানিয়েছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

বর্তমানে রাইলস টিউব দিয়ে তরল খাবার খাওয়ানো হচ্ছে বুদ্ধদেবকে। যদিও তাতেও অনীহা রয়েছে তার। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, অল্প অল্প করে কথা বলছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। রাতে বুদ্ধবাবুর সঙ্গে ছিলেন তার দীর্ঘ দিনের সঙ্গী তপনবাবু। তার সঙ্গেও অল্প বিস্তর কথা বলতে পেরেছেন বুদ্ধদেব।

buddhadeb

বুদ্ধদেবের সোডিয়াম-পটাশিয়াম রিপোর্ট দেখে চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন বিশেষ চিন্তার কিছু নেই। সংক্রমণকে মোকাবিলা করতে কড়া ডোজের অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া হচ্ছে। আপাতত তার ক্রিয়েটিনিন আগের চেয়ে নিয়ন্ত্রণে এসেছে। আরও টানা পাঁচ দিনের অ্যান্টিবায়োটিকের ডোজ চলবে বুদ্ধবাবুর। তার পর পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন চিকিৎসকেরা।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর