শুক্রে মাহেন্দ্রক্ষণ, চন্দ্রযান-৩-এর সাফল্য কামনায় তিরুপতি মন্দিরে ইসরোর বিজ্ঞানীরা

বাংলা হান্ট ডেস্ক: চন্দ্রযান ৩ মিশনের (Mission Chandrayaan-3) দোরগোড়ায় ইসরো (ISRO)। আর মাত্র একটা দিন। আগামী ১৪ জুলাই ঠিক দুপুর ২ টো ৩৫ মিনিটে চাঁদের উদ্দেশ্যে পাড়ি দেবে চন্দ্রযান-৩। প্রস্তুতি তুঙ্গে। এই মূহুর্তে গোটা দেশবাসীর একটাই কামনা, এবার যেন সফল হয় বহু প্রতীক্ষিত মিশন। আর এই ঐতিহাসিক মিশনের সাফল্য কামনায় বৃহস্পতিবার তিরুপতি মন্দিরে পুজো দিলেন ইসরোর বিজ্ঞানীরা।

এইদিন চন্দ্রযান-৩-এর একটি ছোট রেপ্লিকা মডেল নিয়ে তাঁরা পুজো দিতে যান তিরুপতির মন্দিরে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এবারের অভিযানে যাতে কোন ত্রুটি না থাকে তাই গত বুধবারই প্রযুক্তিগত যাবতীয় দিক খতিয়ে দেখা সম্পূর্ণ হয়েছে। এমনকি একপ্রস্থ মহড়াও সেরে ফেলেছেন বিজ্ঞানী মহল।

ইসরো কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে টুইট করা জানানো হয়েছিল, “চন্দ্রযান ৩ উৎক্ষেপণ হবে ১৪ জুলাই, ২০২৩, শ্রীহরিকোটা থেকে দুপুর ২টো ৩৫ মিনিট নাগাদ৷ আপডেটের জন্য সঙ্গে থাকুন।” পরবর্তী আপডেটে জানানো হয়, প্রস্তুতি পর্ব শেষ। এক দফা ‘মহড়া’ও দিয়ে ফেলেছেন বিজ্ঞানীরা। তাছাড়া LVM3 রকেটের সঙ্গে চন্দ্রযান ৩-কে জুড়ে দেওয়ার কাজও শেষ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এর আগে চন্দ্রযান ১ কে সফলভাবে উৎক্ষেপণ করা হয় ২০০৮ সালের ২২ অক্টোবর। সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টার থেকে উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল এই মহাকাশযানটি। এই মহাকাশযানের মূল উদ্দেশ্য ছিল, চাঁদের রাসায়নিক, খনিজ, ভূতত্ত্ব সম্পর্কে তথ্য অন্বেষণ করা। চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূর থেকে তার পরিক্রমা করছিল চন্দ্রযান ১।

তবে ইসরোর কাছে সবচেয়ে কঠিন অভিযান ছিল চন্দ্রযান ২। ২০১৯ সালের ২২ জানুয়ারি অনেক আশা নিয়ে উৎক্ষেপন করা হয় চন্দ্রযান ২। সফল হতে গিয়েও ব্যর্থ হয়ে যায় অভিযানটি‌। চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে ২.১ কিলোমিটার দূরে পৌঁছানো মাত্রই সমস্ত যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এরপর ২০১৯ সালে ৬ সেপ্টেম্বর অবতরন করার চেষ্টা করলে চন্দ্রযান-২-এর ল্যান্ডারটি চাঁদের পৃষ্ঠে ভেঙে পড়ে যায়।

chandrayaan 3

তবে এবার আর কোন রকম ত্রুটি বিচ্যুতি চায় না ইসরো। যে কারণে বুধবার একপ্রস্থ মহড়া দিয়ে ফেলেছেন বিজ্ঞানীরা। ইসরো সূত্রে খবর, বুধবারের রিহার্সাল ইতিমধ্যেই সফল। তারপরেই গত বৃহস্পতিবার তিরুপতি মন্দিরে গিয়ে ঈশ্বরের কাছে মিশনের সাফল্য কামনায় প্রার্থনা করলেন বিজ্ঞানীদের একটি দল। আপাতত চন্দ্রযান ৩-এর সফলতার অপেক্ষায় প্রহর গুনছেন বিজ্ঞানীমহল সহ গোটা দেশ।