হার মানবে কাশ্মীরও! দার্জিলিংয়ের সিঙ্গালিলা পার্কে ব্যাপক তুষারপাত, পয়সা উসুল পর্যটকদের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ইতিমধ্যে তাপমাত্রা অনেকটাই কমেছে কালিম্পং (Kalmpong), কার্শিয়াংয়ে (Kurseong)। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, উত্তরবঙ্গের (North bengal) নানা প্রান্তে এখন বৃষ্টি হচ্ছে। গত বুধবার দার্জিলিংয়ের (Darjeeling) পাহাড়ি এলাকায় হালকা তুষারপাতের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিল। আবহাওয়ার পরিস্থিতির কারণে দার্জিলিং শহর মরসুমের প্রথম তুষারপাতের সাক্ষীও ছিল। আনন্দে মেতে উঠেছেন পর্যটকেরা।

   

আর এরই মধ্যে বরফের চাদরে ঢেকে গেল দার্জিলিংয়ের সিঙ্গালিলা পার্ক (Singalila National Park) এলাকা। এই শীতের মরসুমে প্রথম তুষারপাত ঘটেছে দার্জিলিংয়ে। সাদা বরফের চাদরে মুড়েছে দার্জিলিংয়ের এই এলাকা। দার্জিলিং এবং সিকিম এই দুই জায়গার উঁচু অংশে শুরু হয়েছে তুষারপাত। যার জেরে দার্জিলিংয়ের তাপমাত্রা তলানিতে নামতে শুরু করেছে। পাহাড়ের নানা এলাকায় শিলাবৃষ্টিও শুরু হয়েছে। তাই বড়দিনে বরফের চাদরে ঢাকতে পারে এই শৈলশহর।

কিছুদিন আগেও দার্জিলিংয়ে তুষারপাত দেখা গেছিলো। গত ৬ ডিসেম্বর, বিকেলবেলা সান্দাকফুতে শিলাবৃষ্টি হয়েছিল। এর পরের দিনই সান্দাকফুতে মরশুমের প্রথম তুষারপাত হয়। যা দেখে আনন্দে মেতে উঠেছিলেন পর্যটকেরা। এখন বহু পর্যটক বড়দিনে ঘুরতে দার্জিলিং, সান্দাকফু এবং সিকিমে যাবেন। তারা এই সময় বরফ দেখতে পাবেন যা আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর। বরফ দেখার জন্য প্রচুর পর্যটকের ভিড় জমে। গত বুধবার হঠাৎই পাহাড়ে পারদ তরতর করে নামতে শুরু করেছে। মিরিক থেকে ২৭ কিমি দূরে সুখিয়া এবং সীমানা অঞ্চল পর্যন্ত শিলাবৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া সিঙ্গালিলায়ও বরফ পড়েছে। যার কারণে দার্জিলিং পাহাড়েও তুষারপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

আবহাওয়া অফিস সূত্রে খবর, সিকিম এবং দার্জিলিংয়ের উপরের দিকের নানা এলাকায় তুষারপাতের সম্ভাবনা থাকছে। সেক্ষেত্রে আরও পারড নামার সম্ভাবনা আছে। এমনকি দার্জিলিং,কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার এবং জলপাইগুড়িতে মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। এই আবহাওয়ায় শৈলশহরে ভিড় জমতে দেখা যাচ্ছে। মানুষের ভিড় এতই যে কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেস এবং উত্তরবঙ্গ এক্সপ্রেসে একটি আসনও খালি নেই। সুতরাং ভিড় যে পাহাড়ে বাড়বে তা বোঝাই যাচ্ছে।