টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গবিধানসভা নির্বাচন

আমাকে নিয়ে মিথ্যাচার করা হচ্ছে! গুরুতর অভিযোগ দেবাংশু ভট্টাচার্যের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ  গতকাল তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর দেখা গিয়েছিল যে, তৃণমূলের তরুণ নেতা তথা মুখাপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্যকে টিকিট দেওয়া হয়নি। কিন্তু দুদিন আগে থেকেই চারিদিকে ছড়িয়ে পড়েছিল যে, দেবাংশুবাবু হাওড়ার বালি আসন থেকে এবার প্রার্থী হচ্ছেন। দেবাংশু একদিকে যেমন তৃণমূলের মুখপাত্র। তেমনই আরেকদিকে সোশ্যাল মিডিয়ার সেনসেশন। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় রাজ্যের বিরোধী দলগুলোকে একের পর এক যুক্তি দিয়ে কাত করে তৃণমূলের বড় পদ পেয়েছিলেন। দেবাংশুর বয়স কম হলেও, তাঁর রাজনৈতিক পরিপক্বতাটা অনেক বেশি বলেই মনে করে রাজ্যের রাজনৈতিক মহল।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একনিষ্ঠ ভক্ত বলে পরিচিত দেবাংশুবাবু তৃণমূল তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়ে একাধিক গানও লিখেছেন। ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনের আগে ‘দিল্লী যাবে হাওয়াই চটি” ‘মমতা দি আরেকবার” গানগুলো তুমুল হিট হয়েছিল। আর এবার একুশের নির্বাচনের আগে দেবাংশুর ‘খেলা হবে” গানও ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। তাঁর খেলা হবে গানে কচি থেকে বুড়ো সবাইকেই নাচতে দেখা গিয়েছে।

গতকাল তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হওয়ার পর তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টচার্যকে অপ্রত্যাশিতভাবে টিকিট দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ তুলেছে তাঁর বেশকিছু সমর্থকরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কয়েকদিন ধরেই গুঞ্জন উঠেছিল যে তৃণমূলের মধ্যে যে মুখগুলো নতুন উঠে এসেছে তার মধ্যে অন্যতম দেবাংশু ভট্টচার্য। তাই তৃণমূল কংগ্রেস তাঁকে অবশ্যই টিকিট দেবে। তবে এখন দেবাংশুর সমর্থকদের আশা প্রত্যাশার উপর জল ঢেলে দিয়েছে তৃণমূল কর্তৃপক্ষ। আর এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ক্ষোভ উগরাতে শুরু করেছে দেবাংশুর সমর্থকরা।

দেবাংশুকে টিকিট না দেওয়ায় ন্যাশানাল মিডিয়াতেও খবর করা হয়েছে। আর সেই ন্যাশানাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও নিজের ফেসবুক পেজে দেবাংশুবাবু পোস্ট করেছেন। সেখানেই তিনি নিজের বিরুদ্ধে হওয়া মিথ্যাচার নিয়ে সরব হয়েছেন। দেবাংশুবাবু সেই ভিডিও পোস্ট করে লিখেছেন, ‘খুব ভালো লাগছে! একটা ২৫ বছরের ছেলেকে নিয়ে ন্যাশনাল মিডিয়াকেও মিথ্যাচার করতে হচ্ছে! আলাদা করে প্রতিবেদন বানাতে হচ্ছে প্রাইম টাইমে! যাই হোক, তাদের চ্যানেলেই তাদেরকে সপাটে উত্তর দিতে পেরেছি আশা করি। উত্তর দিতে পেরেছি সোশ্যাল মিডিয়ার আমার কিছু বিরোধীপক্ষের বন্ধুদের, আমার ভোটে না দাঁড়ানোর যাদের উল্লাসের বাঁধ ভেঙে ঘরে জল থইথই অবস্থা!”

তৃণমূলের মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্য নিজের পোস্টের মাধ্যমে বুঝিয়ে দিয়েছেন যে, তিনি টিকিট পাওয়ার জন্য দল করেন না। তিনি তৃণমূলকে ভালোবাসেন বলেই দল করেন। আর টিকিট পাওয়া নিয়ে ওনার মনে কোনও ক্ষোভ অথবা আক্ষেপ নেই।

Related Articles