টাইমলাইনভারত

ক্রিসমাস আর নিউ ইয়ারে মিলল বাজি পোড়ানোর অনুমতি, দীপাবলিতে জারি ছিল নিষেধাজ্ঞা!

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ দেশে করোনার পরিস্থিতি আর দূষণের কথা মাথায় রেখে National Green Tribunal (NGT) বাজি পোড়ানোয় অনির্দিষ্ট কালের জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। NGT পরিস্কার বলে দিয়েছিল যে, দিল্লী-এনসিআর সমেত গোটা দেশে বাজি পোড়ানোয় নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে। NGT জানিয়েছিল যে, যেই সমস্ত রাজ্য, শহরে হাওয়ার কোয়ালিটি খারাপ সেখানে কড়া ভাবে এই আইন লাগু করতে হবে।

এবার NGT ক্রিসমাস আর নিউ ইয়ারের জন্য দেশের সেই সমস্ত এলাকায় রাত ১১ঃ৫৫ মিনিট থেকে ১২ঃ৩০ মিনিট পর্যন্ত বাজি পোড়ানোর অনুমতি দিয়েছে, যেখানে হাওয়ার কোয়ালিটি একটু ভালো। জানিয়ে দিই, NGT এর পূর্বের নির্দেশ অনুযায়ী, সার্বজনীন স্থল,আর কোনও বিয়েতে বাজি পোড়ানো নিষিদ্ধ ছিল। এছাড়াও বাজি বিক্রিতেও নিশেধাগা জারি করেছিল গ্রিন ট্রাইবুনাল।

গত মাসে দীপাবলির আগে NGT ৯ নভেম্বর বাজি কেনা-বেচায় সম্পূর্ণ ভাবে নিষেধাজ্ঞা জারি করে দিয়েছিল। NGT এর তরফ থেকে এই নিষেধাজ্ঞা ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত জারি করা হয়েছিল। আর এই মুহূর্তে দিল্লী-এনসিআর’এ করোনার মামলা দ্রুত গতিতে বৃদ্ধি পাওয়ায় এই নিষেধাজ্ঞা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে।

দিল্লীতে দীপাবলির ঠিক আগে দিল্লী সরকার একটি বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। দিল্লী সরকার দিল্লী-এনসিআর’এ ৯ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বাজি পোড়ানো সম্পূর্ণ ভাবে নিষিদ্ধ করে দেয়। এমনকি গ্রিন ক্র্যাকার্সের বিক্রিতেও নিষেধাজ্ঞা জারি হয়। সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, দিল্লীকে দূষণ থেকে বাঁচাতে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

বিজেপির নেতা মেজর সুরেন্দ্র পুনিয়া NGT এর নয়া সিদ্ধান্ত নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন। তিনি NGT কে কটাক্ষ করে ট্যুইট করেন, ‘শাবাশ NGT ক্রিসমাস আর নিউ ইয়ারে রাত ১১ঃ৫০ থেকে ১২ঃ৩০ পর্যন্ত বাজি পোড়াতে পারব। কারণ এতে দূষণ হবে না। দীপাবলিতে এই NGT এর আদেশে ৮৫০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। মাই লর্ড, আপনার এই বৈজ্ঞানিক আবিস্কারের জন্য নোবেল পুরস্কার কেনও পাবেন না?”

Back to top button