টাইমলাইনবিনোদনভিডিও

শেষ ভিডিও, আর বাঁচতে চাই না! সোশ‍্যাল মিডিয়ায় আত্মহত‍্যার ইঙ্গিত বাঙালি ইউটিউবারের

বাংলাহান্ট ডেস্ক: মাস খানেক ধরে একের পর এক আত্মহত‍্যার (Suicide) খবরে তোলপাড় বিনোদুনিয়া। খাস টলিপাড়া থেকে এসেছে চার চারটি আত্মহত‍্যার খবর। এবার ফের তেমনি ইঙ্গিত মিলল সোশ‍্যাল মিডিয়ায়। জনপ্রিয় ইউটিউবার (Youtuber) ঐশ্বর্য মুখোপাধ‍্যায় (Aishwarya Mukherjee) একটি ভিডিও বার্তায় মুখ খুললেন ব‍্যক্তিগত জীবনে বিপর্যয় নিয়ে। দাবি করলেন, আর বাঁচতে চান না!

বাঙালি ইউটিউবারদের মধ‍্যে প্রীতম ও জেফার বেশ জনপ্রিয়। জুটিতে ভিডিও বানান তাঁরা। জেফারের বোনই হলেন ঐশ্বর্য। ইউটিউবে তাঁর সাবস্ক্রাইবার সংখ‍্যাও মন্দ নয়। কিন্তু সম্প্রতি ক্রমাগত ট্রোল আর কটুক্তির শিকার হয়ে ভেঙে পড়েছেন তিনি। একটি ভিডিও বার্তায় হতাশা উগড়ে দিয়েছেন ঐশ্বর্য।


নিজের ইউটিউব চ‍্যানেলে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন তিনি সম্প্রতি। টাইটেলে লিখেছেন, ‘আমার শেষ ভিডিও। আমি বাঁচতে চাই না।’ ভিডিওতে ঐশ্বর্য বলেন, তিনি গত দেড় বছর ধরে নিজে খেটে ভিডিও বানাচ্ছেন। কাউকে কখনো ছোট করেননি। কিন্তু সম্প্রতি তাঁকে ট্রোলের শিকার হতে হচ্ছে। দিদি জেফার ও প্রীতমকে নিজের ভিডিওতে আনা নিয়ে সমালোচনার শিকার হচ্ছেন বলে জানান ঐশ্বর্য। তাঁকে বলা হচ্ছে যে তাঁর কোনো প্রতিভা নেই। তিনি আদতে ‘বিগ জিরো’‌। শুধু প্রীতম জেফারের জন‍্য এত জনপ্রিয়তা তাঁর।

অসহায় ঐশ্বর্যর প্রশ্ন, জেফার তাঁর দিদি। তাঁকে কী বলবেন ভিডিওতে না আসতে? তিনি আর কটুক্তি, সমালোচনা শুনতে পারছেন না। এরপর তো তাঁকে পৃথিবী ছেড়েই চলে যেতে হবে। নাকি তিনি পুলিসের কাছে যাবেন? তাঁর কনটেন্ট নিয়ে সমালোচনা হলে তিনি মেনে নিতেন। কিন্তু ব‍্যক্তিগত আক্রমণ আর সহ‍্য করতে পারছেন বলে মন্তব‍্য করেন ঐশ্বর্য।

ইউটিউবারের ভিডিওটি ভাইরাল হতে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন তাঁর অনুরাগীরা। সংবাদ মাধ‍্যমের তরফে ঐশ্বর্যর দিদি জেফারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘ফালতু ব্লগার’ নামে ইউটিউবারদের একটি টিম তাঁকেও ট্রোল করে ভিডিও বানাচ্ছে। তারা নাকি প্রথমে প্রীতম জেফারের সঙ্গেই কাজ করত। কিন্তু মনোমালিন‍্যের কারণে আলাদা হয়ে যাওয়ার পর থেকেই প্রীতম জেফারের ব‍্যক্তিগত জীবন নিয়ে ট্রোল করছে। তারাই ঐশ্বর্যকেও নিশানা করেছে বলে দাবি জেফারের।

অভিজ্ঞ ইউটিউবার আরো বলেন, ঐশ্বর্যর বয়স কম হওয়ায় মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছেন। বিষয়টা নিয়ে আইনি দিকে যাচ্ছেন জেফার। বেহালা পর্ণশ্রী থানায় জিডি করেছেন বলে জানিয়েছেন ইউটিউবার। পাশাপাশি বোনকেও নজরে নজরে রেখেছেন তিনি।

Related Articles

Back to top button