উত্তরাকাশীর সুড়ঙ্গে ১০ দিন, কেমন রয়েছে ৪১ জন শ্রমিক? প্রকাশ্যে প্রথম ভিডিও

বাংলা হান্ট ডেস্ক : নতুন পাইপ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে উত্তরকাশীর (Uttarkashi) ভাঙা সুড়ঙ্গে আটকে পড়া শ্রমিকদের (Trapped Worker) কাছে। ছ’ইঞ্চি চওড়া সেই পাইপের মাধ্যমে খাবার, জল এবং মোবাইল ফোনের মত প্রয়োজনীয় সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কেমন আছে টানেলে আটকে পড়া ৪১ জন শ্রমিক? তার জানান দিচ্ছে প্রকাশিত এক ভিডিয়ো (Uttarkashi Rescue Video) । যেখানে দেখা যাচ্ছে আটকে থাকা শ্রমিকদের বর্তমান অবস্থা।

screenshot 2023 11 21 09 53 58 47 0b2fce7a16bf2b728d6ffa28c8d60efb

   

পাইপের ভেতর দিয়ে পাঠানো হচ্ছে খাবার ও জল

আজকে নিয়ে ১০ দিন ধরে ধসে পড়া সুড়ঙ্গের মধ্যে আটকা পড়ে রয়েছেন ঐ ১০ জন শ্রমিক। সুড়ঙ্গ থেকে তাদের উদ্ধার করার জন্য নানা ধরণের কৌশল অবলম্বন করেছে উদ্ধারকারী দল। প্রথমে ভাবা হয়, সুড়ঙ্গের মধ্যে চওড়া পাইপ ঢুকিয়ে তাদের বের করে আনা হবে। তবে দ্বিতীয়বার ধস নামার কারণে সেই কাজ আপাতত বন্ধ। আপাতত সেই পাইপ দিয়ে শ্রমিকদের জন্য অক্সিজেন সহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী পাঠানো হচ্ছে।

এন্ডোস্কোপিক ক্যামেরা পাঠিয়ে তোলা হয়েছে ছবি ভিডিও

উদ্ধারকারী দল জানাচ্ছে আটকে পড়া ৪১ শ্রমিক সুস্থ ও নিরাপদে রয়েছেন। এবং তারা কেমন আছেন তা জানার জন্য পাইপের ভেতর দিয়ে এন্ডোস্কোপিক ক্যামেরা ঢুকিয়ে তাদের ছবি ও ভিডিও-ও তোলা হয়েছে। সেখান থেকে তাদের বার করার জন্য ফের একবার চওড়া এবং বিশেষ পাইপ বসানো হচ্ছে। গত সোমবারই উদ্ধারকাজ পর্যবেক্ষণের জন্য আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের একটি দল এসেছে ঘটনাস্থলে।

উদ্ধারকাজ পর্যবেক্ষণের জন্য এসেছে আন্তর্জাতিক দল

আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদলের প্রধান আর্নল্ড ডিক্স জানিয়েছেন, ‘‘এখানে খুব ভাল কাজ হচ্ছে। আমরা ওদের বার করে আনবই। এখানে অনেক কাজ চলছে। আটকে পড়া শ্রমিকদের পাশাপাশি যারা উদ্ধার করছেন, তাদের সুরক্ষার বিষয়টিও মাথায় রাখতে হচ্ছে।’’ পাশাপাশি আটকে পড়া ৪১ জন শ্রমিকের সাথে অনবরত যোগাযোগ রেখেছে উদ্ধারকারী দল। আত্মীয় পরিজনদের সাথে কথা বলারও ব্যবস্থা করেছেন তারা।

 

খাবার হিসেবে কী পাঠানো হচ্ছে?

উল্লেখ্য, এতদিন পর্যন্ত মূলত শুকনো খাবারই পাঠানো হচ্ছিল। তবে এবার শ্রমিকদের সুস্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে স্বাস্থ্যবিদদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। সেই মত পাঠানো হচ্ছে খিঁচুড়ি, ডালিয়া, আপেল, কলা, কমলালেবু ইত্যাদি। সূত্রের খবর, মাটি থেকে প্রায় ৬০ মিটার গভীরে আটকে পড়েছেন ঐ ৪১ জন শ্রমিক। প্রায় ২৪ মিটার পর্যন্ত খুঁড়ে ফেলেছে উদ্ধারকারী দল। নানা দিক থেকে ধ্বংসস্তূপ খোঁড়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। উদ্ধারকারী দল জানাচ্ছে, ঐ শ্রমিকদের কাছ পর্যন্ত পৌঁছাতে আরও চার পাঁচ দিন সময় লাগতে পারে‌।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর