টাইমলাইনভারত

মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এল ভুরি ভুরি সোনা, গুপ্তধন দেখেই চোখ ছানাবড়া জমি ব্যবসায়ীর

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ রূপকথার গল্প মনে হলেও, বাস্তবে এমনই কিছু অবাককর ঘটনা ঘটল তেলেঙ্গানার (telangana) এক জমি ব্যবসায়ীর সঙ্গে। জমিতে খনন চালানোর সময় মাটি থেকে উঠে এল কলসি ভর্তি সোনা রূপোর গহনা। যা দেখে চোখ ছানাবড়া জমি ব্যবসায়ী নরসিমহার। খবর ছড়াতেই, গহনা দেখতে লোকেরা ভিড় জমাল তাঁর বাড়িতে।

ঘটনাটি ঘটে তেলেঙ্গানার জানগাঁ জেলার পেমভারতী গ্রামে। সেখানকার জমি ব্যবসায়ী নরসিমহার জাতীয় সড়কের পাশে নিজের ১১ একর জমিতে কিছু কাজ করছিলেন। সেখানে জমি খননের সময় তাঁর জমির নীচে একটি তামার কলসি দেখতে পান ওই জমি ব্যবসায়ী।

প্রথমটায় কলসি খুলতে দ্বিধা করলেও, পরে কৌতুহল বশত কলসির ঢাকনা খুলতেই তাঁর চোখ কপালে ওঠে। কলসির মধ্যে রয়েছে ভুরি ভুরি সোনা রূপোর গহনা। দেখে সেগুলো কোন ঠাকুরের গহনা বলেই মনে হচ্ছে। তবে এই গহনা ভর্তি কলসি সেখানে কে রেখেছে, তা এখনও অবধি ঠাহর করা যায়নি।

প্রায় ১.৭২৭ কিলো রূপোর গয়না এবং প্রায় ১৮৭.৪৫ গ্রাম সোনার গহনা ছিল ওই কলসির মধ্যে। গলার হার, কানের দুল, নাকছাবি, পায়ের তোড়া বিভিন্ন রকমের সোনা রূপোর গহনা ছিল সেই কলসিতে। গুপ্তধন পাওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়তেই কাতারে কাতারে লোক ভিড় করে তাঁর বাড়িতে।

নিজের জমির নীচে এই কলসি ভর্তি গহনা পেলেও, তা নিজের কাছে রাখতে পারেননি ওই জমি ব্যবসায়ী। কলসি ভর্তি সমস্ত গহনাই রয়েছে জেলার কালেক্টরের অফিসে। পরবর্তীতে সেগুলো নানারকম পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হবে।

Back to top button