পুজোর আগে ট্র্যাকে নামছে নতুন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস! পুরী থেকে ছেড়ে এই ট্রেন কোন কোন স্টেশনে থামবে?

বাংলাহান্ট ডেস্ক : পুজোর সময় আমরা অনেকেই ঘুরতে যেতে পছন্দ করি। আর এই ঘুরতে যাওয়ার প্রধান অবলম্বন হল ট্রেন। এতদিন দূর কোনও গন্তব্যে যেতে হলে আমাদের ভরসা ছিল রাজধানী-শতাব্দী-তাম্রলিপ্তের মতো এক্সপ্রেস ট্রেনগুলি। তবে এ বছর সেই চিত্র খানিকটা বদলেছে। সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে ট্র্যাকে নেমেছে সেমি হাইস্পিড বন্দে ভারত এক্সপ্রেস।

অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এই ট্রেন এখন আলোচনার শীর্ষে। এই ট্রেন প্রথম থেকে সাধারণ মানুষের মধ্যে কৌতূহল সৃষ্টি করেছিল। অনেকেই এই ট্রেনে ইতিমধ্যে সফর করে ফেলেছেন। পূর্ব ভারতে বেশ কিছু বন্দে ভারত এক্সপ্রেস (Vande Bharat Express) চলাচল করছে। তার মধ্যে বেশ কিছু ট্রেন পেয়েছে আমাদের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গও। সেই ট্রেনগুলি একাধিক রুটে যাতায়াত করে।

   

আরোও পড়ুন : ‘১৬টি ফাইল তদন্তে …” লিপ্স অ্যান্ড বাউন্ডস্ মামলায় নয়া মোড়! হাইকোর্টে জবাব দিল ED

এগুলির মধ্যে অন্যতম একটি রুট হল পুরী-হাওড়া। কিছুদিন আগে এই রুটে বন্দে ভারত এক্সপ্রেস পরিষেবা শুরু হয়। এটাই ছিল উড়িষ্যার প্রথম বন্দে ভারত এক্সপ্রেস। তবে জানা যাচ্ছে এবার উড়িষ্যা তাদের দ্বিতীয় বন্দে ভারত পেতে চলেছে। পুজোর আগেই শুরু হচ্ছে নতুন আরও একটি বন্দে ভারত এক্সপ্রেস রুট।

আরোও পড়ুন : লোকনাথ বাবার ছবির পিছনে রয়েছে বড় রহস্য! জেনে নিন সেই কাহিনী

জানা যাচ্ছে উড়িষ্যার পুরী থেকে নতুন এই বন্দে ভারত চলবে রাউরকেলা পর্যন্ত। সূত্রের খবর, চলতি মাসের শেষের দিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই ট্রেনের উদ্বোধন করতে পারেন। শনিবার বাদে সপ্তাহের অন্যান্য সব দিন এই ট্রেন যাতায়াত করবে। খুরদা রোড, ভুবনেশ্বর, কটক, ঢেঙ্কানাল, আঙ্গুল, কেরেজাঙ্গা, সম্পলপুর শহর, পুরী, রাউরকেলাতে স্টপেজ দেবে নতুন এই বন্দে ভারত।

ঝাড়সুগুড়াতেও এই ট্রেন থামতে পারে বলে সূত্রের খবর। এখনো পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, পুরী থেকে এই ট্রেনটি ছাড়বে ভোর পাঁচটায়। বেলা ১২:৪৫ মিনিটে এই ট্রেন গিয়ে পৌঁছাবে রাউরকেলা। এরপর সেই ট্রেনটি পুরীর উদ্দেশ্যে রাউরকেলা থেকে দুপুর ২:১০ মিনিটে ছাড়বে এবং রাত ৯:৪০ মিনিটে পুরী এসে পৌঁছাবে।

vande bharat express around mumbai

এই ট্রেনটি পাঁচ মিনিট দাঁড়াতে পারে ভুবনেশ্বরে। বাকি স্টেশনগুলিতে দুই মিনিট করে স্টপেজ দেবে এই ট্রেন। ৭ ঘণ্টা ৩০ মিনিট নতুন এই বন্দে ভারত সময় নেবে ৫০৫ কিলোমিটার পথ ডাউন লাইনে অতিক্রম করার জন্য। অন্যদিকে, আপ লাইন অতিক্রম করার জন্য এই ট্রেনের সময় লাগবে ৭ ঘন্টা ৪৫ মিনিট।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর