১৫,০০০ টাকা নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে দাঁড় করিয়েছিলেন কোম্পানি! আজ টার্নওভার ১,৫০০ কোটি

বাংলা হান্ট ডেস্ক: প্রত্যেকেই চান জীবনে নিজেদের লক্ষ্যপূরণ করে সফল (Success) হতে। সেই দৌড়েই সামিল হন সবাই। যদিও, কেউ কেউ নিজেদের পরিশ্রম এবং অদম্য ইচ্ছের ওপর ভর করে রীতিমতো সফলতার শীর্ষে পৌঁছে সকলের কাছেই এক অনুপ্রেরণা হয়ে ওঠেন। পাশাপাশি, তাঁদেরকে দেখে উদ্বুদ্ধ হন বাকিরাও। বর্তমান প্রতিবেদনে আমরা ঠিক সেইরকমই এক ব্যক্তির প্রসঙ্গ উপস্থাপিত করব যিনি আজ কয়েকশ কোটি টাকার সাম্রাজ্য গড়ে তুলেছেন।

মূলত, আজ আমরা চিক শ্যাম্পুর মালিক সি কে রঙ্গনাথনের (C K Ranganathan) প্রসঙ্গে জানাবো। ইতিমধ্যেই চিক শ্যাম্পুর এই কাহিনি আজ বিশ্বজুড়ে ম্যানেজমেন্ট স্কুলেগুলিতে একটি জনপ্রিয় কেস স্টাডি হিসেবে বিবেচিত হয়। জেনে অবাক হবেন যে, পুদুচেরিতে পাউচের আকারে লঞ্চ হওয়া প্রথম শ্যাম্পুর ভাবনা কিন্তু এসেছিল সি কে রঙ্গনাথনের মাথাতেই।

   

Know the success story of C.K.Ranganathan

সি কে রঙ্গনাথনের বাবা ছিলেন একজন কৃষক এবং ছোট আকারের ফার্মাসিউটিক্যাল প্যাকেজিংয়ের উদ্যোক্তা। তাঁর নাম হল চিন্নি কৃষ্ণন। বর্তমানে সি কে রঙ্গনাথন চিক শ্যাম্পু প্রস্তুতকারী কোম্পানি CavinKare প্রাইভেট লিমিটেডের মালিক। এদিকে, শ্যাম্পু ছাড়াও তাঁর কোম্পানি বর্তমানে দুগ্ধ, পানীয় এবং সেলুন ব্যবসাতেও সক্রিয়ভাবে কাজ করছে।

আরও পড়ুন: বৃষ্টির রেশ কাটিয়ে কবে বিদায় নেবে বর্ষা? পুজোর আগেই বড় খবর হাওয়া অফিসের

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, প্রথমে শ্যাম্পুর ব্যবসা তাঁদের একটি পারিবারিক ব্যবসা হিসেবে বিবেচিত হলেও পরবর্তীকালে রঙ্গনাথনের বাবার মৃত্যুর পর ভাইদের সাথে তাঁর দূরত্বের সৃষ্টি হয়। যার কারণে তিনি ওই ব্যবসা থেকে বেরিয়ে আসেন। সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, তিনি মাত্র ১৫,০০০ টাকা নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন। পাশাপাশি, রঙ্গনাথন একটি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন যে, “একটি ছোট এক কামরার বাড়ির ভাড়া ছিল প্রতি মাসে ২৫০ টাকা। আমি একটি কেরোসিন স্টোভ এবং একটা সাইকেলও কিনেছিলাম।”

আরও পড়ুন: PPF-এর সুদ নিয়ে বিরাট খবর, সাড়ে তিন বছর পর বাড়াতে চলেছে কেন্দ্র! খুশির হাওয়া সরকারি কর্মীদের মধ্যে

কিছু সময়ে পর তিনি চিক ব্র্যান্ডের শ্যাম্পু তৈরি করতে শুরু করেন। যেটির ৭ ml-এর দাম ছিল মাত্র ৭৫ পয়সা। ধীরে ধীরে তাঁর চিক শ্যাম্পুর নাম সমগ্ৰ দেশে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। দক্ষিণ ভারতে তৈরি এই শ্যাম্পু সারা ভারতেই প্রচুর বিক্রি হতে শুরু করে। আজ তাঁর কোম্পানিতে ৪,০০০-এরও বেশি জন কাজ করেন। শুধু তাই নয়, বর্তমানে তাঁর কোম্পানির টার্নওভার পৌঁছে গিয়েছে ১,৫০০ কোটি টাকাতেও। আর এভাবেই সি কে রঙ্গনাথন এক দৃষ্টান্ত হয়ে রয়েছেন দেশের তরুণ উদ্যোক্তাদের কাছে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর