‘লোকসভায় মমতাকে ফের হারাব’, কাঁথি তমলুকে বিরাট চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর, থরহরিকম্প তৃণমূল শিবিরে

বাংলা হান্ট ডেস্ক : আর মাত্র কয়েকটা মাস। তার পরই চব্বিশের লোকসভা নির্বাচন (Lok Sabha Election 2024)। ইতিমধ্যে প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে সর্বস্তরে। দিল্লি দখলের লড়াইয়ে বিরোধীরা একজোট হয়ে তৈরি করেছে ইন্ডিয়া(INDIA) জোট। বাংলা নিয়ে অমিত শাহ (Amit Shah), জে পি নাড্ডারা (Jagat Prakash Nadda) প্রাথমিক প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন। রাজ্য বিজেপি (Bharatiya Janata Party) নেতৃত্বকে বৈঠকে ডেকে নানা প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিচ্ছেন দিল্লির শীর্ষনেতারা।

   

তৃণমূলও বিয়াল্লিশে বিয়াল্লিশের লক্ষ্য নিয়ে শুরু ঝাঁপিয়ে পড়েছে লড়াইয়ে। এরই মধ্যে অবশ্য নিজের গড়ে গেরুয়া ঝড় বইয়ে দিতে কাঁথি, তমলুক লোকসভা কেন্দ্রকে নিশানা করলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। শনিবার খেজুরির সভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হারানোর চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে এই দুই আসন দখলের হুঁশিয়ারি দিলেন তিনি।

mamata suvendu wb

এদিন খেজুরির সভা থেকে শুভেন্দু বলেন, ‘গত লোকসভা ভোটে কাঁথি এবং তমলুক কেন্দ্রে লক্ষাধিক ভোটে পিছিয়ে ছিল বিজেপি। চব্বিশে উলটো হবে। কাঁথি এবং তমলুক থেকে বিজেপি জিতবে, দুটি জায়গা থেকেই লক্ষাধিক ভোটে হারবে তৃণমূল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হারাবই।’ উল্লেখ্য, কাঁথি(Kanthi) এবং তমলুক (Tomluk) লোকসভা কেন্দ্রের দুই সাংসদ শিশির অধিকারী ও দিব্যেন্দু অধিকারী। সম্পর্কে তাঁরা শুভেন্দুর বাবা এবং ভাই।

আরও পড়ুন : কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী শান্তনু ঠাকুরের কনভয়ে ধাক্কা বোলেরোর! নিছকই দুর্ঘটনা না রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র? তদন্তে পুলিস

শিশির ও দিব্যেন্দু তৃণমূলের হয়ে ভোটে লড়েই সাংসদ হন।২০২০ সালে শুভেন্দু দলবদলের পর তাঁরাও বিজেপিতে যোগ দেন। তবে দলবদল আইনের গেরোয় জটিলতা রয়েছে শিশির অধিকারী ও দিব্যেন্দু অধিকারীর বিষয়টি। এবার পাকাপাকিভাবে তাঁদের মধ্যে দিয়েই হয়ত দুই আসন বিজেপির (BJP) দখলে আনার পরিকল্পনা অধিকারী পরিবারের।

এদিনের সভায় কাঁথি, তমলুক আসন ছিনিয়ে নেওয়ার পাশাপাশি তৃণমূলকে বুথ শূন্য করে দেওয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন বিরোধী দলনেতা। পঞ্চায়েত ভোটে দলের ব্যর্থতা নিয়ে তাঁর সাফাই, কেন্দ্রীয় বাহিনীকে বসিয়ে রাখার ফলেই এমনটা হয়েছে।

সম্পর্কিত খবর