শেষমেশ কেল্লাফতে! ১৩ বছর ধরে লটারি কেটে যাওয়ার ফল….

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : অনেকেই লটারিকে জুয়া খেলা বলেন। তবে নিন্দুকেরা যাই বলুক না কেন, লটারি প্রেমীদের কাছে জীবনে দ্রুত সফলতার রাস্তা এই লটারি। আদিকাল থেকে লটারি খেলার প্রচলন আছে। বর্তমানে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা লটারি প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। এই লটারি অনেক সময় বদলে দিয়েছে মানুষের জীবন।

আবার অনেকে লটারি (Lottery) খেলে হয়েছেন সর্বস্বান্ত। গরু পাচার কাণ্ডে তৃণমূলের নেতা অনুব্রত মণ্ডল গ্রেফতার হওয়ার পর উঠে এসেছে দুর্নীতিতে লটারির যোগ। লটারির মাধ্যমে কালো টাকা সাদা করার অভিযোগও সামনে এসেছে। কিন্তু যারা লটারি প্রেমী তারা নিয়মিত কেটে চলেন লটারির টিকিট।

অতীতে বিভিন্ন জায়গায় দেখা গেছে হতদরিদ্র পরিবারের মানুষেরা লটারি জিতে কোটিপতি হয়ে গেছেন। এবার সেরকমই একটি খবর আসছে সুন্দরবন অঞ্চল থেকে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার (South 24 Pargana) সাগরের কচুবেড়িয়ার বাসিন্দা অলোকেশ মেটিয়া গত ১৩ বছর ধরে লটারি কাটছেন। তিনি অতীতে লটারিতে লক্ষাধিক টাকা জিতেছেন।

তবে সম্প্রতি লটারিতে তার কোটি টাকা প্রাপ্ত হয়েছে। কোটি টাকা জেতার খবর পাওয়ার পর অলোকেশ নিরাপত্তার জন্য শরণাপন্ন হয়েছেন পুলিশের। ইতিমধ্যেই তিনি তার টিকিট জমা করে দিয়েছেন থানায়। অলোকেশ কচুবেড়িয়া-লট নম্বর আট ঘাটের ভেসেল কর্মী। তিনি মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ১২৫০ টাকা দিয়ে কাটেন লটারির টিকিট।

whatsapp image 2023 08 02 at 3.34.35 pm

কচুবেড়িয়া ঘাটের লটারির দোকানে টিকিট মেলাতে গিয়ে তিনি অবাক হয়ে যান। দেখেন তিনি লটারিতে প্রথম পুরস্কার অর্থাৎ কোটি টাকা জয় করেছেন। প্রথমে তিনি নিজের চোখকেই বিশ্বাস করতে পারেননি। অলোকেশের এই লটারি জেতার ঘটনায় খুশির ছায়া প্রত্যন্ত সুন্দরবন অঞ্চলের বাসিন্দাদের মধ্যে।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর