টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘দুধ চাইলে ক্ষীর দেব, বাংলা চাইলে চিড়ে দেব” শুভেন্দু অধিকারীকে টিপে মারার হুঁশিয়ারি মদনের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ আজ নেতাই দিবস উপলক্ষে নেতাইতে তৃণমূলের সভায় বক্তৃতা রাখেন প্রাক্তন পরিবহণ মন্ত্রী মদন মিত্র। সেখান থেকে তিনি চাঁছাছোলা ভাষায় আরেক প্রাক্তন পরিবহণ মন্ত্রী তথা বিজেপির নেতা শুভেন্দু অধিকারীকে আক্রমণ করে তিনি। মদন মিত্র নেতাই থেকে শুভেন্দু অধিকারীকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে বলেন, দল যদি চায় তাহলে একুশের ভোটে তিনি নিজেই দাঁড়াবেন নন্দীগ্রাম থেকে। শুভেন্দু অধিকারীকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে তিনি বলেন, তখনই দেখা যাবে কার কত দম।

এরপর তিনি শুভেন্দু অধিকারীকে আরেকটি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে বলেন, শুভেন্দুর ক্ষমতা থাকলে কামারহাটি থেকে একুশের নির্বাচনে যেন মদন মিত্রর সঙ্গে লড়াই করে। এছাড়াও তিনি বলেন, তিনি বুথে বুথে এমন এমন দলীয় কর্মী জন্ম দিতে পারেন, যারা সহজেই শুভেন্দু অধিকারীকে টিপে মারার ক্ষমতা রাখে। এরপর তিনি একটি বহুচর্চিত সিনেমার ডায়লগ দিয়ে বলেন, ‘দুধ চাইলে ক্ষীর দেব, বাংলা চাইলে চিড়ে দেব।”

এরপর মদন মিত্রকে পাল্টা দেন শুভেন্দু অধিকারী। তিনি তমলুক থেকে মদন মিত্রকে বিঁধে বলেন, ‘তৃণমূল এমন একজনকে পাঠিয়েছে, যে ফেসবুক লাইভে নেশা করে আসে। আর সে এখানে এসে বড়বড় ডায়লগ দিয়ে যাচ্ছে। উনি যেই ভাষায় আমাকে আক্রমণ করেছেন, আমি সেসব ভাষা প্রয়োগ করতে পারব না। কারণ আমরা বিদ্যাসাগরের দেশের লোক।”

শুভেন্দু অধিকারী মদন মিত্রকে বিঁধে বলেন, ‘২০১৬ সালে বিধানসভা নির্বাচনে ওঁর হয়ে কামারহাটিতে কী প্রচার করতে যেতে চাইছিল না। ওঁর সাগরেদরা আমাকে এসে কামারহাটিতে প্রচার করার জন্য অনুরোধ করে। এরপর আমি কামারহাটি গিয়ে ওঁর হয়ে প্রচার করে আসে।” তিনি বলেন, উনি জেলে থেকে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন, কি আর বলব! এসব এখন আর কাউকে বলিনা”

Back to top button